রাশিয়াতে ধুমপানের বিরুদ্ধে নিজস্ব নীতিমালা গৃহিত হয়েছে.রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিন ২০১০-২০১৫ সাল পর্যন্ত তামাকবিরোধী নীতিমালা কর্যকর করেছেন.চলতি বছরের এপ্রিল মাসে রাশিয়া বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তামাকবিরোধী ঘোষণাপত্র অনুমোদন করেছে.রাশিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রনালয়ের তথ্য মতে,বর্তমানে রাশিয়াতে মোট জনসংখ্যার শতকরা ৪০ ভাগ লোক ধুমপান করে এবং ৮০ ভাগ তামাকের  ধোঁয়ায় আসক্ত.নতুন গৃহিত এই নীতিমালার লক্ষ্য হচ্ছে রাশিয়াতে ধুমপায়ীদের শতকরা পরিমান ২৫ ভাগে এবং অনিয়মিত ধুমপায়ীদের সংখ্যাও কমিয়ে  আনা.আধুনিক রাশিয়াতে স্বাস্থ্যকর জীবন যাপনের জন্য সংগ্রামকে অবশ্যই নতুন ধাপে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে,এমনই মনে করেন জাতীয় সুস্বাস্থ্য লীগের সভাপতি নিকোলাই কানোনব.আমাদের জীবনের জন্য এটি সাধারন বিষয়-জীবন গঠন করা.কারণ মেডিকেল প্রতিষ্ঠানসমূহ  স্বাস্থের জন্য যতটা প্রভাব বিস্তার না করে  তার থেকেও বেশী করে সুস্থ স্বাভাবিক জীবন.তাই আমাদের জন্য এটি অত্যাবশ্যকীয় একটি বিষয় এবং রাষ্ট্রের এই নীতিমালা তামাক সেবনকারীদের সংখ্যা কমিয়ে আনবে.এই নীতিমালা প্রয়োগের জন্য পরিষ্কারভাবে বর্নানা দেওয়া হয়েছে.ধুমপান মুক্ত এলাকা তৈরী কারারও চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে.এই ধরনের স্থানগুলোর মধ্যে রয়েছে,হাসপাতাল এলাকা,বিদ্যালয়,শিশু সদন,ক্রিড়া কমপ্লেক্স এবং সবধরনের বদ্ধ অবকাঠামো.পরবর্তী বছরই এই তালিকায় আরও অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে শহর ও শহরতলীর সবধরনের যানবাহন,আকাশ পরিবহন,রেল স্টেশন,বাস টার্মিনাল ও বিমান বন্দরসমূহ.সাধারন  জনগনের খাবর স্থান ও বিনোদন স্পটগুলোতেও ধুমপান করা যাবে না.আশা করা হচ্ছে এর ফলে ভবিষ্যতে শুধুমাত্র বিশেষ ঘরে  ধুমপান করা যাবে যেখানে ধোঁয়া বের হবার উপযুক্ত ব্যবস্থা রয়েছে.এদিকে বিশেষজ্ঞরা ধারনা করেন যে,এক ব্যান্ডের সিগারেট অন্যান্য ব্যান্ডের সিগারেটের চেয়ে কম ক্ষতিকর,সেবনকারীদের সাথে এটি সবচেয়ে সাধারন প্রতারনা.নীতিমালার অন্যতম একটি বিষয় হচ্ছে বিজ্ঞাপন.বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে ব্যান্ড মালিক ও তামাক বিক্রয়ের জন্য শর্তারোপ জারি করা হবে.ধুমপান অতি অল্প সময়ের মধ্যেই বিলাসীতায় রুপ নেয়.রাষ্ট্র তামকাজাতীয় পন্যের ক্ষেত্রে ধারাবাহিকভাবে কর বৃদ্ধি অব্যাহত রাখবে এবং তা ইউরোপীয় স্টান্ডার্ডের মাঝামাঝি পর্যায়ে সীমাবদ্ধ রাখবে.সর্বশেষ সময় ধুমপানের বিরুদ্ধে গোটা বিশ্বজুড়েই আন্দোলন চলছে.জানালেন নিকোলাই কানোনব.তিনি বলেন-স্বভাবতই সবদেশসমূহই যারা নিজেদেরকে সামাজিক রাষ্ট্র হিসাবে পরিচয় দিয়ে থাকে এবং সেই সব দেশ যেখানে রাশিয়ার জনগন বিশ্রাম নিতে পচ্ছন্দ করে যেমন-থাইল্যান্ড,তুরষ্ক,মিশর ও তিউনিস সবখানেই ধুমপানের বিরুদ্ধে কঠোর আন্দোলন চলছে.সামাজিক স্থানো ধুমপান একদমই নিষিদ্ধ ,এমন দেশসমূহ হচ্ছে-আয়ারল্যান্ড,নরওয়ে,সুইডেন,মাল্টা,যুক্তরাজ্য,লাটভিয়া,স্লাভেনিয়া,গ্রীস ও সাইপ্রাস.জাপানে ধুমপান ক্রয় করা যায় শুধুমাত্র বিশেষ কার্ডের মাধ্যমে.তবে ফিনল্যান্ডে ১ অক্টবর থেকে তামাকের বিরুদ্ধে সবচেয়ে বেশী কঠোর আইন জারি করা হয়েছে.সেখানে  অপ্রাপ্ত বয়ষ্কদের কাছে  এমনকি ১টি সিগারেট বিক্রি করা হলেও তাকে জেলহাজতে যেতে হতে পারে.এখন থেকে রাশিয়াও ঐ সব দেশের সাথে এক কাতারে থেকে রাষ্ট্রীয় উদ্দোগে ধুমপানের বিরুদ্ধে আন্দোলন পরিচালনা করবে.যদি রাশিয়াতে ধুমপানবিরোধী কার্যক্রম সফলতা অর্জন করে তা হলে অদূর ভবিষ্যতে ধুমপানকারীরা নিজের  অস্বাভাবিক মনে করবে এবং তা হবে না বিলাসিতার পরিচয়.