২৯ শে সেপ্টেম্বর রাশিয়ার খান্তী - মানসিস্ক শহরে সম্মেলন শুরু হবে আন্তর্জাতিক দাবা ফেডারেশনের, সেখানে নতুন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করা হবে. নির্বাচনে ১৬৭ জন প্রতিনিধি অংশ নেবেন. বিজয়ী স্থির হবে গোপন ব্যালট গ্রহণের পর, যেখানে একটি দেশ কেবল একটি ভোট দিতে পারে. আন্তর্জাতিক দাবা ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট হতে গেল প্রয়োজন শতকরা ৫০ ভাগ ভোট ও আরও অন্ততঃ একটি ভোট. এই নির্বাচনের আগে "রেডিও রাশিয়া" কে রাশিয়ার দাবা ফেডারেশনের তরফ থেকে প্রার্থী ও বর্তমানের প্রেসিডেন্ট কিরসান ইল্যুমজিনোভ.- আন্তর্জাতিক দাবা ফেডারেশনের সম্মেলনের প্রধান প্রশ্ন – প্রেসিডেন্ট নির্বাচন. শ্রী ইল্যুমজিনোভ, আপনার প্রতিদ্বন্দ্বীরা কত খানি গুরুত্বপূর্ণ?- সম্মেলন হল আন্তর্জাতিক দাবা ফেডারেশনের সবচেয়ে উচ্চ পদস্থ অঙ্গ. আর এই সম্মেলনে আমরা প্রায় ১০০টি প্রশ্ন নিয়ে আলোচনা করব, তার মধ্যে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনও রয়েছে. আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ২০১৪ সালের দাবা অলিম্পিয়াডের কোন দেশ গৃহ কর্তা হবে. প্রতিদ্বন্দ্বী সম্পর্কে বলতে পারি যে, দুজনের নাম নথিভুক্ত করা হয়েছে, আমি রয়েছি রাশিয়ার দাবা ফেডারেশনের পক্ষ থেকে ও আনাতোলি কার্পোভ রয়েছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্সের পক্ষ থেকে. গত তিন মাস ধরে প্রাক্ নির্বাচন প্রচার চলেছিল. আমি একটি পরিকল্পনার খসড়া প্রস্তাব করেছিলাম, যা আমি সমস্ত জাতীয় ফেডারেশনের সঙ্গে আলোচনা করেছি, (আন্তর্জাতিক দাবা ফেডারেশনের মধ্যে বর্তমানে আছে ১৭০টি দেশের ফেডারেশন). আর আমার প্রতিদ্বন্দ্বীর পরিকল্পনা এখনও আমি বা ফেডারেশনের কোন সদস্যই চোখে দেখি নি.- আপনি রাশিয়া একটি রাজ্য কালমীকির রাজ্যপাল পদ থেকে অবসর নিচ্ছেন, তাই আপনার কাজ কর্ম দাবা সম্বন্ধে কি আরও বেড়ে যাবে? আপনার নিজের কি পরিকল্পনা?- আপনি জানেন আমি গত পনেরো বছর ধরে কালমীকির রাজ্যপাল ও আন্তর্জাতিক দাবা ফেডারেশনের প্রেসিডেন্টের পদে একসাথে কাজ করেছি. ২৪ শে অক্টোবর আমি এই অঞ্চলের নেতৃত্ব থেকে অবসর নিচ্ছি এবং ঠিক করেছি পুরোপুরি আন্তর্জাতিক দাবা ফেডারেশনের কাজে মনোযোগ দেবো, যাতে দাবা খেলা বিশ্বে আরো জনপ্রিয় হয়. প্রধান কাজ যা আমার শেষ করার ইচ্ছা আছে ও যা আমি প্রাক্ নির্বাচনী পর্যায়ে আলোচনা করেছি – তা হল দাবাকে ১৭০টি দেশের স্কুলের পাঠ্যক্রমের অন্তর্ভুক্ত করা. আমি চাই যে, আন্তর্জাতিক দাবা ফেডারেশন দেশ গুলির শিক্ষা মন্ত্রণালয়, ক্রীড়া মন্ত্রণালয় ও অলিম্পিক কমিটি গুলির সঙ্গে চুক্তি সই করে, যাতে দাবাকে সাধারন স্কুলের পাঠ্যক্রমের আওতার মধ্যে আনা সম্ভব হয়. এটাকে আমি আমার প্রধান কাজ হিসাবে করার জন্য স্থির করেছি এবং এই দিকে মনোযোগ পুরো দেবো. এ ছাড়া আমরা ইউনেস্কোর সঙ্গে একটা চুক্তি তৈরী করছি, রাষ্ট্রসংঘের সঙ্গেও মানবিক সহায়তা পরিকল্পনায় অংশ নেওয়া হবে. পরবর্তী বছরকে আমি চাই আফ্রিকার বছর বলে ঘোষণা করতে.- স্কুলের পাঠ্যক্রমে দাবাকে অন্তর্ভুক্ত করাকে আপনি কেন প্রয়োজন বলে মনে করেন? - কারণ ১৯৯৪ সাল থেকে আমি কালমীকি রাজ্যের স্কুলের পাঠ্যক্রমে দাবাকে অন্তর্ভুক্ত করেছিলাম. প্রথমে এটা ছিল স্বেচ্ছায় বেছে নেওয়ার জন্য, তারপর করা হয়েছিল অবশ্য পাঠ্য. আমরা একই সঙ্গে বাচ্চাদের কিন্ডার গার্ডেনে ও মাঝারি এবং উচ্চ শিক্ষার ক্ষেত্রেও দাবাকে অন্তর্ভুক্ত করেছিলাম. আর তারপর লক্ষ্য করেছিলাম যে, স্কুলে বাচ্চারা যখন দাবা খেলা শেখে, তখন তাদের পড়াশোনা ও নিয়মানুবর্তীতা বিষয়ে শুধু উন্নতিই হয় নি, বলা যেতে পারে কয়েক গুণ উন্নতি হয়েছে. আর এর ফলে গত তিন বছর ধরে কালমীকি রাজ্য রাশিয়ার স্কুল শেষ করার পরীক্ষায় প্রথম বা দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে – রাশিয়ার ৮৫টি রাজ্যের মধ্যে স্কুল শেষ করার পরীক্ষার ফলে রাজ্য দারুণ উন্নতি করেছে, অনেক বেশী ছেলে মেয়ে স্কুলের পরে উচ্চ শিক্ষার সুযোগ পাচ্ছে ভাল ফল করার জন্য এবং নানা ধরনের জাতীয়, ইউরোপীয় এবং বিশ্ব অলিম্পিয়াডের ফলাফলে কালমীকি রাজ্যের ছেলে মেয়েরা বহু পুরস্কার পাচ্ছে. এটা সকলেই লক্ষ্য করেছেন. গত বছরে এপ্রিল মাসের প্রশাসনিক বৈঠকের সময়ে রাশিয়ার লোকসভাতে শিক্ষা মন্ত্রী আন্দ্রেই ফুরসেঙ্কো বলেছিলেন যে, কালমীকি রাজ্যের স্কুলে দাবা শেখানো হওয়ার ফলে ছাত্র ছাত্রীদের সাফল্যের পরিমান খুবই বেশী.- কিরসান নিকোলায়েভিচ, আপনি দাবা খেলাকে আপনার সমস্ত জীবনের একটি অন্যতম বিষয়ে কেন পরিনত করেছেন?আমার অনেক হবি. আমি টেনিস, বক্স ও আরও নানা ধরনের স্পোর্টস ভালবাসি. আর দাবা সব সময়েই আমাকে সাহায্য করেছে. আমি ৫ বছর বয়স থেকে দাবা খেলছি. ১৫ বছর বয়সে কালমীকি রাজ্যে বড়দের দাবা চ্যাম্পিয়ন হয়েছি. আমাকে দাবা সাহায্য করেছে যখন আমি সোভিয়েত সামরিক বাহিনীতে কাজ করেছি, পড়াশোনা করেছি মস্কোর আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ইনস্টিটিউটে, ব্যবসা করেছি, রাজনীতি করেছি, এই সব সময় ধরেই. দাবা সাহায্য করে পরিস্থিতিকে হিসাব করতে আর যতটা সম্ভব জীবনের ছকে ভুল চাল কম দিতে. আমি মনে করি দাবা অন্যদেরও সাহায্য করতে বাধ্য, তাই আমি এই খেলাকে জনপ্রিয় করার কাজ করি, উন্নতির চেষ্টা করি. এটা মানুষের কাজের এক বিশেষ দিক, একমাত্র খেলা, যা হাজার বছর ধরে চলে আসছে, বহু প্রাচীন সভ্যতায় এই খেলা ছিল, বহু জাতির সংস্কৃতির এটা অঙ্গ. সভ্যতা তৈরী হয়েছে, হারিয়ে গিয়েছে, অনেক খেলাই পাল্টে গিয়েছে, কিন্তু কেন জানি না দাবা খেলার চিহ্ন পাওয়া গিয়েছে মায়া সভ্যতায়, আজটেক সভ্যতায়, জাপানী দ্বীপে, তিব্বতে, মঙ্গোলিয়াতে, ভারতে, চীনে সর্বত্র.আপনি প্রস্তাব করেছেন নিউ ইয়র্কে ধ্বংস হয়ে যাওয়া টুইন টাওয়ার্সের জায়গায় দাবার বহুতল অট্টালিকা তৈরী করার. এই বাড়ীতে কি থাকবে? কেন এই জায়গা আপনাকে এত টানে?- বিগত কিছু কাল ধরে একটা বিতর্ক চলছে, তাতে এমনকি ভারতে মানুষ নিহতও হয়েছে – প্রায় ২০০ লোক, কারা সব কোরান পুড়িয়ে ফেলতে চাইছে. ফেলে আসা বছর গুলিতে ধর্ম আর কেন জানি মানুষকে এক করছে না, আলাদা করে দিচ্ছে. যদি  কোন একটা ধর্ম নিজের সম্বন্ধে কিছু একটা বলে, তবে অন্য ধর্ম তার বিরোধিতা করে. ডোনাল্ড ট্রাম্প যখন এই জায়গা কিনে কিছু একটা তৈরী করতে বলেছিলেন, আমরা আন্তর্জাতিক দাবা ফেডারেশনে মনে করেছিলাম যে, আমরা একটা প্রস্তাব তো করতেই পারি. আমি প্রস্তাব করেছিলাম সেখানে বিশ্ব দাবা কেন্দ্র তৈরী করার – এটা একটা ২৪ তলা বাড়ী, যা দেখতে হবে দাবার রাজার ঘুঁটির মতো. তার মধ্যে থাকবে আন্তর্জাতিক দাবা একাডেমী, দাবা শেখার জন্য বিনা খরচে স্কুল, কম্পিউটার সেন্টার আর দাবার অন্যান্য নানা বিশিষ্ট দিক – কারণ অনেক দিক রয়েছে দাবার সঙ্গে জুড়ে, যেমন, দাবা ও শিল্প, দাবা ও খেলাধূলা, দাবা ও বিজ্ঞান ইত্যাদি. আমরা মনে করি দাবা খেলা যা পূর্ব থেকে পশ্চিম দিকে ছড়িয়েছে, তা সবাইকে এক করতে পারে, মানুষকে আলাদা করতে নয়. আমার মনে হয়, এটা একটা মানিয়ে চলার সমাধান, যা আজ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জনগনের মধ্যে সমর্থন পেয়েছে. আমরা আমার প্রস্তাবের বিষয়ে বহু শত সমর্থন পত্র পেয়েছি.- এবারে শেষ প্রশ্ন, কিরসান নিকোলায়েভিচ বর্তমানে খান্তী – মানসিস্ক রাজ্যে ৩৯ তম আন্তর্জাতিক দাবা অলিম্পিয়াডের খেলা চলছে. আপনি এই প্রতিযোগিতার জন্য তৈরী হওয়া ও তা চলার কাজকে কি রকমের মূল্যায়ণ করবেন? যারা আজ ইউগ্রা রাজ্যের রাজধানীতে এসেছেন, তাদের সমস্ত কিছুই কি পছন্দ হয়েছে? - আমি এই প্রতিযোগিতার আয়োজক কমিটিকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি, রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভকে ধন্যবাদ ও খান্তী মানসিস্ক রাজ্যের রাজ্যপাল নাতালিয়া কোমারোভা কেও ধন্যবাদ জানাচ্ছি, যাঁরা গত চার বছরের প্রচেষ্টায় এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছেন দারুণ ভাল. এটা শুধু আমিই বলছি না, এটা বলছেন এই সম্মেলনে আসা সমস্ত দেশের খেলোয়াড় ও প্রতিনিধিরা. প্রথমতঃ এটা এক রকমের রেকর্ড – ১৬০ টি দেশের দাবা খেলোয়াড়েরা এই প্রথম এখানে এসেছেন. গ্রীষ্ম অলিম্পিকের পরে আমরাই এত দেশের লোককে একটি খেলার জন্য জড় করতে পেরেছি. দ্বিতীয়তঃ এখানে বন্দোবস্ত করা হয়েছে দারুণ ভাল – হোটেল গুলি বিশ্ব মানের হয়েছে, দাবা অলিম্পিয়াডের যত রকমের খাওয়া দাওয়ার ব্যবস্থা আমি দেখেছি, এখানে সবার চেয়ে ভাল হয়েছে. প্রতিযোগিতার জন্য তৈরী হওয়া হল ঘর গুলি খুব ভাল করে তৈরী করা হয়েছে, সেখানে ইন্টারনেট রয়েছে. অর্থাত্ খেলা সেই মুহূর্তেই সারা বিশ্বের ইন্টারনেটে দেখা যাচ্ছে. সাংবাদিক কেন্দ্র দারুণ কাজ করছে. খেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হয়েছিল বিশাল করে – সকলেই বলেছে যে, এটা বিশ্ব দাবা অলিম্পিয়াডের সেরা উদ্বোধনী অনুষ্ঠান.মনে করিয়ে দেওয়া যেতে পারে যে, আন্তর্জাতিক দাবা ফেডারেশনের মধ্যে ১৭১ টি ফেডারেশন রয়েছে, তাদের মধ্যে ১৩০টিরও বেশী জাতীয় অলিম্পিক কমিটি গুলির সদস্য এবং সেই সব দেশের ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের দ্বারা স্বীকৃত. আন্তর্জাতিক দাবা ফেডারেশনের সাধারন সম্মেলন – এটা সবচেয়ে উচ্চ পর্যায়ের ও কার্যকরী কমিটি প্রতি বছরে একবার মিলিত হয়ে থাকে. প্রতি চার বছরে একবার করে সাধারন সভাতে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করা হয়ে থাকে.