রাশিয়া এই প্রথম আজ দেশের জন্য স্মরণীয় দিবস হিসেবে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শেষ হওয়ার দিবস পালন করছে. এই সর্বরুশ উত্সব প্রবর্তিত হয়েছে ২০১০ সালে রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভের উদ্যোগে. ১৯৪৫ সালের ২রা সেপ্টেম্বর জাপানের আত্মসমর্পণের দলিল স্বাক্ষরিত হয়েছিল. এ ঘটনাটিকে সরকারীভাবে রক্তক্ষয়ী দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শেষ হওয়ার দিন বলে বিবেচনা করা হয়, যে যুদ্ধে সোভিয়েত ইউনিয়ন প্রায় ২ কোটি ৭০ লক্ষ লোক হারিয়েছিল. এ উত্সব পালনের কাঠামোতে পক্লোন্নায়া টিলাতে দেশপ্রেমাত্মক মহাযুদ্ধের কেন্দ্রীয় মিউজিয়ামে নতুন সামরিক-ঐতিহাসিক এবং সামরিক প্রযুক্তির প্রদর্শনীর উপস্থাপনা হবে. দেখানো হবে প্রথম স্বদেশী ভারী ট্যাঙ্ক কা.ভে-১, বোমারু বিমান ইল-৪, এবং তাছাড়া গ্রেট-বৃটেন ও জাপানের সামরিক প্রযুক্তি. তাছাড়া, আগন্তুকরা দেখতে পাবেন সামরিক-ঐতিহাসিক পুনর্গঠনের পৃথক পৃথক ঘটনা, অনুষ্ঠিত হবে ফ্রন্টের প্রবীন যোদ্ধাদের অংশগ্রহণে সাহসিকতার পাঠ, এবং রাশিয়া ও চীনের প্রবীন যোদ্ধাদের সাক্ষাত্.