চীন সীমান্ত পর্যন্ত খনিজ তেলের পাইপ লাইন রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিন উদ্বোধন করেছেন. পূর্ব্ব সাইবেরিয়া থেকে প্রশান্ত মহাসাগর পর্যন্ত মূল পাইপ লাইনের থেকে একটি প্রশাখা আমুর অঞ্চলের স্কোভোরদিনো জনপদ থেকে চীন সীমান্তের দাতসিন শহর পর্যন্ত পৌঁছেছে. রাশিয়ার জন্য এই প্রকল্প খুবই গুরুত্বপূর্ণ, যা দেশের স্ট্র্যাটেজিক খনিজ সম্পদকে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করে দেবে, এত দিন পর্যন্ত খনিজ তেল বেশীর ভাগই ইউরোপে পাঠানো হচ্ছিল, আর এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশে গুলি কমই তেল পেয়েছে – বলেছেন পুতিন. এই পাইপ লাইন দিয়ে এবারে আঞ্চলিক ভাবে রাশিয়া বছরে ৩ কোটি টন খনিজ তেল পাঠাবে ও পরে তা প্রসারিত হলে বছরে ৫ কোটি টন তেল পাঠানো সম্ভব হবে. প্রধানমন্ত্রীর মতে এই প্রকল্প চীনের জন্যও খুবই প্রয়োজনীয়, তার ক্রমবর্ধমান অর্থনীতিতে জ্বালানী বিষয়ে স্থিতিশীলতা আনার জন্য এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প. এই পাইপ লাইন তৈরী করার জন্য চীন রাশিয়ার কোম্পানী গুলিকে ২৫ বিলিয়ন ডলার ঋণ দিয়েছে, বদলে রাশিয়া আগামী ২০ বছর ধরে চীনকে বছরে দেড় কোটি টন তেল পাঠাবে, এই তেল পাঠানো আগামী বছরের পয়লা জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়ার কথা.