রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ খিমকি অঞ্চলের বনে গাছ কাটা থামিয়েছেন. মস্কো-পিতারবুর্গ মোটরপথ তৈরীর বিকল্প ধরণ বিবেচনা করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে, যাতে মস্কো উপকন্ঠের বনাঞ্চল সংরক্ষণ করে রাখা যায়.

   রাষ্ট্রপতির এ সিদ্ধান্তের আগে পরিবেশ রক্ষকদের প্রতিবাদ আন্দোলন হয়েছিল. পরিবেশ-বিশেষজ্ঞরা এ ব্যাপরে সন্দেহ প্রকাশ করেন নি যে রাশিয়ার দুটি বড় কেন্দ্র- মস্কো ও সাঙ্কত-পিতারবুর্গকে যুক্ত করা দরকার নতুন, আধুনিক, দ্রুতগামী মোটর-পথের দ্বারা. তবে জনসমাজ জোর দাবি করে রাস্তাটি যেন বনাঞ্চলকে এড়িয়ে তৈরি করা হয়, কারণ রাজধানীর একোলজির জন্য এই বনাঞ্চল অতি মূল্যবান.

   খিমকির বনাঞ্চলের ভাগ্যে ভালোর দিকে পরিবর্তন আসতে পারে, তার আভাস পাওয়া যায় রাষ্ট্রপতির কাছে দেশের প্রধান রাজনৈতিক শক্তির আবেদনে. এই একক রাশিয়া পার্টি রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন করে খিমকির বনাঞ্চলকে বাঁচাতেঃ এখানে গাছ কাটা থামাতে এবং এ মোটর-পথের অন্যান্য বিকল্প ধরণ বিবেচনা করতে. রাষ্ট্রপতি মেদভেদেভ গৃহীত সিদ্ধান্তের কথা জানান নিজের ভিডিও-ব্লগেঃ

   সম্প্রতিকালে আমার কাছে খিমকি বনাঞ্চলের ভাগ্য সংক্রান্ত বহু আবেদন এসেছে. মোটর-পথ নির্মাণ বিষয়ে সরকারের দ্বারা পৃথক সিদ্ধান্ত গ্রহণ সত্ত্বেও, এ প্রশ্নটি আমাদের আদালতী ব্যবস্থায় বিবেচিত হয়েছিল এবং বিশেষ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছিল, তা সত্ত্বেও লোকে, বিশেষ করে বিভিন্ন রাজনৈতিক পার্টির প্রতিনিধিরা, ক্ষমতাসীন একক রাশিয়া পার্টি থেকে শুরু করে বিরোধী পার্টিগুলির প্রতিনিধিরা, বিভিন্ন বিশেষজ্ঞ মহলের প্রতিনিধিরা বলছেন যে এ বিষয়টির অতিরিক্ত বিশ্লেষণ প্রয়োজন. এত সংখ্যক আবেদন বিবেচনা করে আমি সরকারকে নির্দেশ দিই এই মোটর-পথ নির্মাণ সংক্রান্ত সিদ্ধান্তের বাস্তবায়ন স্থগিত রাখতে.

   খিমকি বনাঞ্চলকে বাঁচানোর জন্য সংগ্রামের শুধু একোলজিক্যালই নয়, সামাজিক গুরুত্বও আছে, মনে করেন গ্রীনপিস রাশিয়া কর্মসূচির ডিরেক্টর ইভান ব্লোকোভঃ

   খিমকি বনাঞ্চল বিষয়টি ব্যাপক গণ-আন্দোলনের সূচনা হয়ে ওঠে, লোকে যাতে ব্যক্তিগতভাবে নিজেদের মনোভাব প্রকাশ করতে চায় এবং চেষ্টা করে. বাস্তবিকপক্ষে এটিই হল নাগরিক জনসমাজ, এইভাবেই তার কাজ করা উচিত.

   খিমকি বনাঞ্চলের রক্ষা- রাশিয়ার তরুণ নাগরিক জনসমাজের প্রথম একোলজিক্যাল বিজয় নয়. সোচিতে অলিম্পিক প্রকল্পের নক্সা বানানোর সময় অনেক কিছুই বদলাতে হয়েছে একোলজিস্টদের এবং জনসমাজের আকাঙ্ক্ষা অনুযায়ী. একই কথা বলা যায় বৈকাল হ্রদের কাছ দিয়ে তেলের পাইপলাইন পাতা সম্পর্কে- তা হ্রদের পাশ থেকে ৪০০ কিলোমিটার দূরে সরিয়ে দিতে হয়েছে প্রকৃতি রক্ষকদের সাথে সম্মতিতে আসার জন্য. অনুরূপ সমস্যা যাতে "উত্তরী প্রবাহ" পাইপলাইন পাতার সময় দেখা না দেয় তার জন্য বিশেষজ্ঞরা প্রস্তুতির পর্যায়েই একোলজিস্টদের সাথে সমস্ত প্রশ্ন আলোচনা করেছেন.

   অবশ্যই, একোলজি ও অর্থনীতির সঙ্গতি সাধন সর্বদা সহজ হয় না. তবে, কর্তৃপক্ষ যদি জনসমাজের মতামত শোনে, এমনকি তা আর্থিক স্বার্থের বিরুদ্ধে গেলেও, যেকোনো প্রকল্প সংশোধন করা যায়, এমনকি  সরকারের দ্বারা তা অনুমোদিত হলেও.