রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদক বান কি মুন বৃহস্পতিবার সাধারণ অ্যাসেম্বলির বৈঠকে বিপর্যয়কর বন্যা উপলক্ষে পাকিস্তানে যে পরিস্থিতি গড়ে উঠেছে সে সম্পর্কে বর্ণনা করবেন. এ সপ্তাহে তিনি বন্যাপীড়িত অঞ্চল থেকে ফিরেছেন, যেখানে ব্যক্তিগতভাবে ধ্বংসের পরিসরের মূল্যায়ন করেছেন. রাষ্ট্রসঙ্ঘের তথ্য অনুযায়ী, পাকিস্তানের সাতটি অঞ্চলে বন্যা হয়েছে, তাতে ১২০০ জনের বেশি মারা গেছে, দেড় কোটির বেশি লোক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে. ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চলগুলির পুনর্স্থাপনের জন্য প্রায় ৪৬ কোটি ডলার প্রয়োজন. বান কি মুনের কথায়, লোকেদের প্রয়োজন খাদ্যদ্রব্যের, পানীয় জলের, নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের, ওষুধপত্রের, এবং সাময়িক আশ্রয়ের. রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ অ্যাসেম্বলির আসন্ন বৈঠক হবে মানবতাবাদী সাহায্যের বিশ্ব দিবসে, যা প্রতি বছর পালিত হয়. তা উত্সর্গীত ২০০৩ সালে বাগদাদে রাষ্ট্রসঙ্ঘের দপ্তরে আক্রমণের প্রতি, যাতে রাষ্ট্রসঙ্ঘের ২২জন কর্মী নিহত হয়, সেই সঙ্গে মিশনের নেতাও.