ইয়েমানে ঘাঁটি গেড়ে থাকা আল-কাইদা সন্ত্রাসবাদী জালের শাখা হর্মুজ প্রণালীতে তৈলবাহী ট্যাঙ্কারে নতুন আক্রমণের ভয় দেখাচ্ছে.ইস্লামপন্থীদের সাইট, যার উদ্ধৃতি দিচ্ছে স্পুতনিক টেলিচ্যানেল, শাখার বিবৃতি প্রকাশ করেছে, এ খবরের পরে যে সংয়ুক্ত আরব এমীরতন্ত্রের এল-ফুজেইরা থেকে জাপানের এম স্টার ট্যাঙ্কার রওনা হয়েছে, যার সামান্য ক্ষতি হয়েছিল ২৮শে জুলাই হাতবোমা ফাটানোর ফলে. ৩৩৩ মিটার লম্বা এ জাহাজটি পারস্য উপসাগর থেকে জাপানে নিয়ে যাচ্ছিল ২০ লক্ষ ব্যারেল কাঁচা তেল. আগস্টের গোড়ায় এ কান্ড্র জন্য দায়িত্ব গ্রহণ করেছিল আব্দাল্লা আল-আজ্জামের ব্রিগেডের জঙ্গীরা. এই আত্মগোপনে থাকা দলটির নাম দেওয়া হয়  আফগানিস্তানে আরব মোজাহেদদেরআন্দোলনের একজন সংগঠকের নামে. জানানো হয়েছিল যে, আত্মঘাতী সন্ত্রাসবাদী আয়ুব আত-তাইশান ট্যাঙ্কারের কাছে গিয়ে বোমাটি বিস্ফোরণ করে. ফলে, একজন নাবিক আহত হয়, তবে ট্যাঙ্কার থেকে তেলের নির্গমণ হয় নি.জাহাজটি ভাসমান থাকে এবং স্বতন্ত্রভাবে এমীরতন্ত্রের বন্দরে যায় মেরামতের জন্য. শুক্রবার "আল-জাজিরা" টেলি-স্টেশন সংযুক্ত আরব এমীরতন্ত্রের সীমান্ত বাহিনীর এক উত্সকে উদ্ধৃত করে এক বিবৃতি প্রচার করে, যাতে সরকারীভাবে এ কথা স্বীকার করা হয়েছে যে, ট্যাঙ্কারের বিরুদ্ধে অন্তর্ঘাত চালানো হয়েছে. পারস্য উপসাগরের দেশগুলির বিশেষজ্ঞরা হর্মুজ প্রণালীতে এ ভীতিতে উদ্বিগ্ন, কারণ এখান দিয়েই পার হয় তেলের সামুদ্রিক সরবরাহের ৪০ শতাংশ.