আজেরবাইজান থেকে রাশিয়ায় দুটি হেলিকপ্টার এসেছে আগুন নেভানোর জন্য. প্রজাতন্ত্রের বিপর্য নিরসন মন্ত্রণালয়ে জানানো হয়েছে যে, মি-১৭ এবং কা-৩২আ মার্কা হেলিকপ্টার চারটি কর্মীদল সহ মোট ১৯ জন যাত্রা করছে ভরোনেঝ ও লিপেত্স্ক শহরে. পরিকল্পনা আছে যে তারা রাশিয়ার ভূভাগে থাকবে দু সপ্তাহ. তবে, প্রয়োজন হলে তাদের থাকার মেয়াদ বাড়নোযেতে পারে. আজেরবাইজানের বিপর্যয় নিরসন মন্ত্রণালয়ে আরও জানানো হয়েছে যে, রাশিয়ায় অতিরিক্ত প্রযুক্তি এবং কর্মী পাঠাতে প্রস্তুত. ইউক্রেনও রাশিয়াকে সাহায্য করতে প্রস্তুত আগুন নেভানোয়, নিজের ভূভাগে ক্ষতিগ্রস্তদের রাখতে, বলেছেন ইউক্রেনের প্রথম উপ-প্রধানমন্ত্রী আন্দ্রেই ক্লিউয়েভ. সুমি, খার্কোভ, লুগানস্কও দনেত্স্ক প্রদেশে ইতিমধ্যে কিছু দল গঠিত হয়েছে, যারা রাশিয়ার সাথে রাষ্ট্রীয় সীমানার পাশের এলাকায় সমবেত হয়েছে. তাছাড়া, ক্ষতিগ্রস্তদের গ্রহণের জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুতির অবস্থায় রয়েছে দনেত্স্ক শহরের বিশেষবাবে সজ্জিত দাহ-কেন্দ্র. ক্লিউয়েভ আরও জানান যে, ইউক্রেনের একসারি স্বাস্থ্য সংস্থা স্বাস্থ্য পুনরুদ্ধারের জন্য শিশুদের গ্রহণ করতে প্রস্তুত. আগে ইউক্রেনের বিপর্যয় নিরসন মন্ত্রণালয়ের দুটি বিমান ভরোনেঝে পোঁছেছে এবং আগুনের বিরুদ্ধে সংগ্রাম শুরু করেছে. লুগানস্ক প্রদেশ থেকে রাশিয়াবাসীদের সাহায্যের জন্য ৬ একক প্রযুক্তি এবং ২৫ জন কর্মীকে পাঠানো হয়েছে.