আগস্টের প্রথমার্ধে , ৬ই থেকে ১৪ই আগস্ট, অনুষ্ঠিত হবে রুশ-মার্কিন মহড়া সতর্ক ঈগল-২০১০. রাশিয়ার বিমান বাহিনীর প্রতিনিধি লেফটেনেন্ট-কর্নেল ভ্লাদিমির দ্রিক জানান যে, এ মহড়ার উদ্দেশ্য হল সন্ত্রাসবাদীদের দ্বারা বিমান অপহরণের ক্ষেত্রে মিলিত কার্যকলাপ প্রণয়ন করা. তাঁর কথায়, মহড়ার মুখ্য দপ্তর থাকবে রাশিয়ার খাবারোভস্কে এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কলোরাডো-স্প্রীংসে, আর সহায়ক দপ্তর- রাশিয়ার পেত্রোপাভলোভস্ক-কামচাতকায় এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কার অ্যাঙ্কোরিজে. তিনি আরও উল্লেখ করেন যে, মখ্য দপ্তরগুলিতে থাকবে প্রত্যেক পক্ষের পারস্পরিক ক্রিয়াকলাপের গ্রুপের প্রতিনিধিরা, সেই সঙ্গে একজন করে প্রতিনিধি থাকবে সাজানো সন্ত্রাসবাদীদের দ্বারা দখল করা বিমানে. দ্রিক উল্লেখ করেন যে, এ মহড়া চালানো হচ্ছে রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সশস্ত্র বাহিনীর সঙ্গতি-সাধন ও সামরিক সহযোগিতা উন্নত করার কর্ম-পরিকল্পনা অনুযায়ী.