রাশিয়া আগে থেকে অনুমান যোগ্য স্ক্রিপ্ট অনুযায়ী স্থিতিশীল রাজনৈতিক জীবনে উন্নতি করবে – এই ঘোষণা করেছেন সোচীতে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ, তাঁকে ২০১২ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচন সম্বন্ধে সাংবাদিকেরা আবার প্রশ্ন করলে, তিনি এই উত্তর দিয়েছেন. তিনি উল্লেখ করেছেন যে, স্থিতিশীলতার একটি অন্যতম শর্ত হল আইন সঙ্গত ভাবে সরকারের পরম্পরা পরিবর্তন ও দেশে রাজনৈতিক শক্তি গুলির মধ্যে ও তাদের নিজেদের মধ্যে স্বাভাবিক সম্পর্ক.রাশিয়া রাষ্ট্রপতি তার শাসন কালের পরে দেশ স্থিতিশীল ও অনুমান যোগ্য কার্যকরী রাজনৈতিক ব্যবস্থা রেখে যেতে চেয়েছেন. তিনি বিশেষ করে বলেছেন যে, জানেন না কে ২০১২ সালের রাষ্ট্রপতি পদের জন্য নির্বাচনে প্রার্থী হতে চলেছে. বর্তমানের প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে তিনি প্রতিযোগিতায় নামবেন কিনা এই প্রশ্নের উত্তরে, রাষ্ট্রপতি উল্লেখ করেছেন, নিকটস্থ শক্তির সঙ্গে নির্বাচনের সময়ে কড়া প্রতিদ্বন্দ্বীতা রাশিয়ার কোন ভাল করবে না. ২০১২ সালে কি হবে তা আমি জানি না, জানি না, কে নির্বাচনে লড়বে, - বলেছেন সাংবাদিক সম্মেলনে দেশের প্রধান. "এটা মেদভেদেভ হতে পারে, হতে পারে পুতিন, অথবা তৃতীয় অন্য কেউ হতে পারে" – ঘোষণা করেছেন রাষ্ট্রপতি.বর্তমানে তাঁর নিজের ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে সম্পর্ক সম্বন্ধে বলতে গিয়ে দিমিত্রি মেদভেদেভ বলেছেন, যে একদিকে তার কোন পরিবর্তন হয় নি, আগের মতই বন্ধুত্বের রয়েছে, আর অন্য দিকে প্রচুর পরিবর্তন হয়েছে. "আমাদের বর্তমানের সম্পর্ক – মেদভেদেভ যোগ করেছেন – এটা বর্তমান রাষ্ট্রপতি ও প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির সম্পর্ক, এটা হিসাবে না এনে পারা যায় না". বিশেষজ্ঞরা কিন্তু আপাততঃ তৃতীয় কাউকে দেখতে পাচ্ছেন না, যে দিমিত্রি মেদভেদেভ ও ভ্লাদিমির পুতিনের ধারাকে বজায় রাখতে পারবে. প্রসঙ্গতঃ বলা যেতে পারে যে, রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের দেড় বছর আগে ক্রেমলিনে এক ধরনের নিজের থেকে ঠিক করার প্রক্রিয়া চালু হয়ে গিয়েছে, সেই রকমই মনে করে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক নিকোলাই পেত্রভ বলেছেন:"বর্তমানে সেই সময় চলছে, যখন রাজনৈতিক শ্রেনী পরবর্তী রাষ্ট্রপতির সময় কাল অথবা পরবর্তী দুটি সময়কালের মডেল নিয়ে ঠিক করায় ব্যস্ত. আর সেই সময়ে, যখন পরে এই সম্বন্ধে একটা সিদ্ধান্তই নেওয়া হয়ে যাবে, যার সম্বন্ধে বহুবার পুতিন এবং মেদভেদেভ বলেছেন, তখন তা জানতে পারাও যাবে. আর তাই বোঝাই যাচ্ছে যে, অদূর ভবিষ্যতে আমরা সেই রকম গুরুত্বপূর্ণ কোন ভিতরের রদবদল দেখতে পাবো না".রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা দেশে থাকলে, তার প্রমাণ পাওয়া যায়, সামাজিক ও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে, এই ধারণা পোষণ করেন রাশিয়ার শিল্পপতি ও ব্যবসায়ী সংঘের উপ প্রধান ইগর ইউরগেনস. তিনি বলেছেন:"বিদেশী বিনিয়োগ কারী এবং রাশিয়ার আভ্যন্তরীন বিনিয়োগকারীরা অবশ্যই কম বেশি বুঝতে বাধ্য যে, কোন দিকে রাশিয়ার রাজনীতি ও অর্থনীতির পেন্ডুলাম টাল খাবে. সেই কারণেই দরকার যে, দেশ কোন একটা অনুমান যোগ্য কাঠামোর মধ্যে থাকে".এক দিক থেকে এটা আমেরিকার মতো সরকারের উন্নতির কাঠামa, যেখানে দুটি প্রধান দল ডেমোক্রাট ও রিপাব্লিকান দের মতানৈক্য থাকে অনেক প্রশ্নেই, কিন্তু দেশের গতি কখনোই ১৮০ ডিগ্রী পাল্টে যায় না. সম্পূর্ণ পরিস্কার যে, বর্তমানের রাশিয়ার নেতৃত্বের কাছে এই মডেল গ্রহণ যোগ্য বলে মনে হয়েছে, সেই সমস্ত বহু প্রাক্তন সোভিয়েত দেশের রাজ্যের বর্তমান রাজনৈতিক কাঠামোর চেয়ে, যেখানে প্রতিটি নতুন সরকার প্রচুর শক্তি ব্যয় করে দেশকে অন্য রাজনৈতিক পথে চালিত করতে.