কিন্তু সাধারণ লোকেরা সমস্ত ধরনের দ্রষ্টব্য দেখতে পাবেন না, কারণ ব্যবসার জন্য রাখা প্রথম কয়েকটি দেখানো বিমান ও প্রযুক্তির কয়েকটি তাদের নিজেদের জায়গায় ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে. যেমন, বোয়িং কর্পোরেশন তাদের ড্রিমলাইনার ফেরত নিয়ে গেছে, আর সুখই কর্পোরেশন সুপারজেট – ১০০ রাশিয়ার ঝুকভস্কি এয়ারপোর্টে ফেরত নিয়ে চলে এসেছে. এখানে বিমানটিকে আরও পরীক্ষা করা হবে. এই প্রদর্শনীতে ৪৭ বিলিয়ন ডলার মূল্যের চুক্তি হয়েছে, তার মধ্যে রাশিয়ার ভাগে পড়েছে ১০ বিলিয়ন ডলার.