২০১০ সালের শেষের আগে এই বিমান গুলি ভারত পৌঁছবে, আজ খবর দিয়েছেন সুখই কর্পোরেশনের এই ধরনের বিমান প্রযুক্তি নির্মাণের প্রধান মিখাইল পগোসিয়ান. তাঁর কথামতো ভারত অ্যাডমিরাল গর্শকভ (বিক্রমাদিত্য) জাহাজ আধুনিকীকরণের পর তার উপরে রাখার জন্য ১৬ টি এই ধরনের বহুমুখী বিমান বায়না করেছিল, তার মধ্যে ৬টি বিমান মিগ – ২৯কা ভারতকে ইতিমধ্যে দেওয়া হয়েছে, বাকী ১০ টি চতুর্থ প্রজন্মের (৪++)বিমান যোগ হলে আকাশে প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দিনে রাত্রে, যে কোন ধরনের আবহাওয়াতে জলে স্থলে জোরদার হবে.