গত চার সপ্তাহ ধরে রাশিয়াতে এক অস্বাভাবিক গরম পড়েছে, রাজধানীর কাছে এত গরম যে, তা আফ্রিকার বা ইউরোপের পর্যটন কেন্দ্র গুলির থেকে বেশী. শহর গুলিতে অ্যাসফাল্ট রাস্তায় গলে যাচ্ছে, পাখা, ঠাণ্ডা পানীয়, আইস ক্রীম ও এয়ার কণ্ডিশনার বিক্রী বেড়ে গিয়েছে কয়েক গুণ. বিশ্বের বাজারে গমের দাম বেড়ে গিয়েছে. পরিবেশ বিশেষজ্ঞরা নানারকমের সাবধান বাণী উচ্চারণ করছেন এবং আবারও বলছেন বিশ্বের আবহাওয়া পাল্টে যাওয়ার কথা.    রাজধানীর আবহাওয়া দপ্তর বিগত কয়েকদিন ধরেই রেকর্ড তাপমাত্রা লক্ষ্য করছে. শনিবারে তাপমাত্রা বেড়ে হয়েছিল ৩৮' সেলসিয়াস, আবহাওয়া দপ্তরের কর্মীরা বলছেন এটাও শেষ না হতে পারে, হাওয়ার গতি কম হওয়ার কারণে মস্কো উপকন্ঠে বেশ কিছু জায়গায় চল্লিশ ডিগ্রী গরম পার হওয়া সম্ভব. সব মিলিয়ে এবারের জুলাই মাস বিগত ১৩০ বছর ধরে আবহাওয়ার প্রকৃতি মাপার রেকর্ড অনুযায়ী সবচেয়ে গরম মাস হতে পারে. মধ্য রাশিয়ার এই সময়ের গড় তাপমাত্রাকে এবারে নয় ডিগ্রী বেশী ছাড়িয়ে গেছে.    গরমে বনে দাবানলের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে, তার মধ্যে জৈব অঙ্গার পুড়ছে. বিপর্যয় নিরসন মন্ত্রণালয়ের খবর অনুযায়ী মস্কো শহরের চারপাশে ২০০৯ সালের তুলনায় এই জৈব অঙ্গার জ্বলে যাওয়ার পরিমান চার গুণ বেশী.     এই রকমের অস্বাভাবিক গরমে দেশের কৃষির প্রভূত ক্ষতি হতে পারে. জাতীয় দানা শষ্য উত্পাদক সংঘের প্রেসিডেন্ট পাভেল স্কুরিখিনের মতে খরার কারণে রাশিয়াতে গত বছরের পরিমানের চেয়ে শতকরা ২০ থেকে ২৫ শতাংশ ফসল কম হবে. এই বছরে ৮০ মিলিয়ন টনের বেশী দানা শষ্য উত্পাদন সম্ভব হবে না. এই পরিমান শষ্য দেশের আভ্যন্তরীন প্রয়োজন মেটাতে সক্ষম হলেও বিশেষজ্ঞরা এই বছরে রপ্তানীর পরিমান বিশ মিলিয়ন টন থেকে কমিয়ে ১৫ মিলিয়ন টন করেছেন.    বিশ্ব বন্য জন্তু সংরক্ষণ ফান্ডের আবহাওয়া প্রকল্পের রাশিয়ার প্রধান আলেক্সেই ককোরিন মন্তব্য করে বলেছেন:    "অবশ্যই এই রকমের টানা গরম চললে তা রাশিয়ার কেন্দ্রীয় অঞ্চলের জন্য অস্বাভাবিক কিন্তু বর্তমানের বিশ্বের গতি প্রকৃতিই এই রকম, মনে করা হয়েছে যে, প্রকৃতির সমস্ত রকমের বিপজ্জনক ঘটনা ও তার মধ্যে অস্বাভাবিক গরম আগামী সময়ে বেশী বার হবে ও প্রতি বারের সঙ্গে তার মধ্যে ঘটার সম্ভাবনা বাড়তে থাকবে.    আমি মনে করি, আজ রাশিয়াতে নানা অঞ্চলে যে অস্বাভাবিক গরম পড়েছে এবং একই রকম অস্বাভাবিক ঠাণ্ডা যা এবারের শীতে হয়েছিল – এই সবই বিপজ্জনক আবহাওয়ার লক্ষণ, যা বাড়ছে সাধারণতঃ মানুষের তৈরী বিগত তিরিশ চল্লিশ বছর ধরে গ্রীন হাউস এফেক্ট হওয়ার ফলে. তার মধ্যে খুবই খারাপ লক্ষণ দেখা যাচ্ছে: যদি বছর পনেরো আগে রাশিয়াতে প্রকৃতির বিপজ্জনক ঘটনা হত ১৫০ থেকে ২০০ তো এখন তা বেড়ে হয়েছে ৩৫০ থেকে ৪০০. বেশীর ভাগ খারাপ ঘটনা অবশ্যই ঝড়, ঝঞ্ঝা, বন্যা, প্রচুর বরফ পড়া ইত্যাদি এবং তা থেকে বিরাট ক্ষতি হচ্ছে. প্রসঙ্গতঃ খুব গরম থেকেই ঝড়ের হাওয়া তৈরী হয়".    কিন্তু আমাদের জন্য আগামীতে কি অপেক্ষা করছে? আলেক্সেই ককোরিন উল্লেখ করেছেন যে, পরিবেশের উপর মানুষের প্রভাব কমাতে হবে, অর্থনীতিতে জ্বালানী ব্যবহারকে আরও ফলপ্রসূ করতে হবে এবং পরিবেশে দূষণ কমাতে হবে. একই সঙ্গে রাশিয়ার লোকেদের নতুন আবহাওয়াতে মানিয়ে নিতে শিখতে হবে.    চিকিত্সকেরা স্বাস্থ্যের খেয়াল রাখতে বলেছেন, বেশী করে জল খেতে বলেছেন, কড়া সূর্যের আলোয় কম সময় কাটাতে বলেছেন, ধারা জলে স্নান বা ঠাণ্ডা গরম জলে বাথ টবে স্নান করতে উপদেশ দিয়েছেন. আবহাওয়া দপ্তরের কর্মীদের ভবিষ্যদ্বাণী অনুযায়ী আগামী সপ্তাহেও রাশিয়ার ইউরোপীয় অংশে গরম কমবে না.