রাষ্ট্রসংঘে রাশিয়ার পক্ষ থেকে স্থায়ী প্রতিনিধি ভিতালি চুরকিন বিশ্বাস করেন যে, ইরানের বিরুদ্ধে নেওয়া নিষেধাজ্ঞা প্রয়োজনীয় ফল দিতে পারে ও ছয় দেশের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে আবার আলোচনা শুরু করার পথ হতে পারে. রাষ্ট্রসংঘের উন্নতি সম্বন্ধে বলতে গিয়ে ভিতালি চুরকিন উল্লেখ করেছেন যে, বর্তমানের ব্যবস্থাতে বিশেষ করে গুরুত্বপূর্ণ হল এই সংস্থার ক্ষমতা সম্বন্ধে আবার মূল্যায়ণ করা. তাঁর কথামতো, এই সমস্ত সংস্থা, আর বিশেষ করে যৌথ নিরাপত্তা চুক্তি সংস্থা সমস্ত রকমের ক্ষমতাই রাখে বিশেষ করে তার নিজের এলাকায় এবং নিজের অধিকারের মধ্যে কাজ করার. অংশতঃ রাষ্ট্রসংঘের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ ভাবে সহযোগিতা করে এবং তার সমর্থনে, আমরা রাষ্ট্রসংঘের সাধারন সভাতে যৌথ নিরাপত্তা চুক্তি সংস্থা ও রাষ্ট্রসংঘের মধ্যে সহযোগিতা করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা সাধারন সভাতে উত্থাপন করেছি, আর তারই সঙ্গে রাষ্ট্রসংঘ ও যৌথ নিরাপত্তা চুক্তি সংস্থার সচিবদের মধ্যে ঘোষণা পত্র প্রকাশের উদ্যোগ নিয়েছি.