জুলাই মাসের শুরুতে পরপর দুটো ঘটনা ঘটেছে কোসভার উত্তরে: একটা ঘটনা বিরাট আন্তর্জাতিক প্রতিধ্বনি তুলেছে, দ্বিতীয়টি অল্প, কিন্তু দুটো ঘটনাই মনে হচ্ছে একে অপরের সঙ্গে যোগ আছে.তা হল, ২রা জুলাই কোসভার মিত্রোভিত্সা শহরে সের্ব লোকেদের কোসভা প্রশাসনে চ্যান্সেলারী খোলার প্রতিবাদে আয়োজিত শান্তিপূর্ণ মিছিলের সময় এক বিস্ফোরণ ঘটে. এই দপ্তর – দেশের উত্তর অংশে প্রথম খেলা হয়েছে প্রিশ্তিনা থেকে আলবেনিয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে নাগরিকদের পরিচয় পত্র দেওয়ার জন্য এবং দেশের সমাকলনের পরিকল্পনার একটি অংশ, অর্থাত্ আলবেনিয় প্রশাসনের আওতায় সের্ব অধ্যুষিত অঞ্চল গুলির সম্পূর্ণ ভাবে চলে যাওয়ার ব্যবস্থা.এই বিস্ফোরণে ১১ জন আহত হয়েছেন, ১ জন নিহত. বেলগ্রাদ সরাসরি এই ঘটনাকে সন্ত্রাসবাদ বলে আখ্যা দিয়েছে এবং রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের জরুরী বৈঠকের আহ্বান করেছে, যেখানে সের্বিয়ার রাষ্ট্রপতি তাদিচ কে "ঠাণ্ডা জলে স্নান" করতে হয়েছে: বেশীর ভাগ নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য দেশের প্রতিনিধি এক্ষেত্রে তাদের ভরসা প্রকাশ করে বলেছেন যে, কোসভার উত্তরে ঘটা ঘটনা, সেই দেশের নিরাপত্তা পরিস্থিতির উপর প্রভাব ফেলবে না. যদিও "সন্ত্রাসবাদী ঘটনা" কথাটি সের্বিয়ার নেতা ছাড়া শুধু রাশিয়ার রাষ্ট্রসংঘের স্থায়ী প্রতিনিধি ভিতালি চুরকিন শুধু ব্যবহার করেছেন.ইউরোপীয় সংঘ ও ন্যাটো জোটের প্রতিনিধি ও কোসভার অন্যান্য আন্তর্জাতিক দপ্তরের প্রতিনিধিরা এই বিস্ফোরণের তীব্র নিন্দা করে বৈঠকের আগেই এর নাম দিয়েছিলেন দুঃখজনক ঘটনা. কিন্তু তাতে হলটা কি? রাষ্ট্রসংঘের শান্তি রক্ষা বাহিনীর কম্যাণ্ডার জেনেরাল বেন্টলের তাঁর লিখিত ঘোষণা তে জানিয়েছেন যে, "আমরা কোন রকমের ঘটনাকেই প্রশয় দেব না, যা কোসভার নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা কে নষ্ট করতে পারে". এই ধরনের আশ্বাস তার বাস্তব প্রযোগ যোগ্যতার ক্ষেত্রে মনে করিয়ে দেয় কোন ভোটের আগে দেওয়া স্লোগান – আমি আপনাদের সব কিছু দেব!, কারণ এই অঞ্চলের স্থিতিশীলতার পরিপন্থী হল কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্মের অভাব, যা প্রিশ্তিনা তে যারা স্বাধীনতা চাই বলছেন, তারা কায়দা করে ভুলে আছেন. এই সম্বন্ধে আবারও রাশিয়ার রাষ্ট্রসংঘের স্থায়ী প্রতিনিধি বলেছেন: সের্বিয়ার মধ্যে কোসভা অন্তর্ভুক্ত আছে এই রাষ্ট্রসংঘের সিদ্ধান্ত আজও কেউ নতুন করে বিচার করে নি ও পরিবর্তন করে নি. এইটা ছাড়াই এরপরও এক দলের পক্ষে ও অন্য দলের বিপক্ষে সিদ্ধান্ত নেওয়া চলতে থাকবে – আর তখন আমরা শুধু একটাই মিছিল দেখব না এবং একটা বিস্ফোরণ শুধু হবে না. এই বিষয়ে রাশিয়ার বালকান সংক্রান্ত বিষয়ে বিশেষজ্ঞ ও বিজ্ঞানী আন্না ফিলিমোনভা বলেছেন:ইউরোপীয় সংঘের প্রতিনিধি পিটার ফেইট তার প্রথম ঘোষণাতেই এই সম্বন্ধে যা বলেছেন, তা থেকে বোঝা গেছে যে, ইউরোপীয় সংঘের ইউলেক্স মিশন সংগঠন ও তার সমস্ত অন্য শাখা প্রশাখা কোসভাতে আলবেনিয় দের পক্ষে রাজনীতি করবে খুবই পরম্পরা মেনে. সমস্ত ব্যবস্থা, যাই তারা নিয়ে থাকুক, তা এক পক্ষের সুবিধার জন্য: এটা কোসভার বিচার ব্যবস্থা পরিবর্তন করা, যাতে সের্ব দের আপীল গুলিকে বাতিল করে দিয়ে তা বিচার না করা, আর কোসভাতে একটি মাত্র টেলিভিশন সম্প্রচারের ব্যবস্থা করা. কোসভার মিত্রোভিত্সা শহরের ঘটনা ইউলেক্স অনুসন্ধান তো করবেই না, যেমন এর আগেও ২০০৪ সালের সের্ব দের বিরুদ্ধে ধ্বংস ও লুঠ কেউ অনুসন্ধান করে নি.কোসভার মিত্রোভিত্সা শহরের ঘটনা নিয়ে যারা ঘোষণা করেছেন, তাদের মধ্যে সেরার জায়গা দেওয়া যেতে পারে কোসভার স্বরাষ্ট্র দপ্তরের প্রধান বৈরাম রেঝেপি যা বলেছেন তাকে. তিনি মনে করেছেন যে, এই বিস্ফোরণ সের্বিয়ার লোকেরা নিজেরাই করে থাকতে পারে. আমরা অপেক্ষা করছি: হয়ত এই রাজনীতিবিদের পরবর্তী ঘোষণা হবে যে, নব্বই এর দশকের শেষে সের্বিয়ার লোকেরা নিজেরাই তাদের শরীরের প্রত্যঙ্গ কেটে নিয়ে দেশের বাইরে বিক্রী করত, আর ২০০৪ সালের ধ্বংস ও লুঠ, যখন এখানের অর্থোডক্স গির্জা পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল এবং শান্তি প্রিয় সের্ব লোকেরা খুন হয়েছিল, সেটাও তারা নিজেরাই করেছে. অর্থাত্ এটা কোন আগ্রাসন ছিল না, গণ আত্মহত্যা করা হয়েছিল.শেষ অবধি কি পাওয়া গেল? সের্ব দের আরও একটি সাবধান বাণী শোনানো হল যে, দেশের উত্তরের অংশকে এক দেশের মধ্যে ঢোকানোর জন্য শুধুমাত্র নানা ধরনের পরিচয় পত্রই ব্যবহার করা হবে না, শক্তিও প্রয়োগ করা হবে. উত্তরকে যে করে হোক স্বঘোষিত দেশের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত করতে হবেই – তা না হলে পাওয়া যাবে বিভেদ পন্থার মধ্যেও বিভেদ, জমিদারী ভাগাভাগি, কোসভাতে বিদেশী বিনিয়োগ আকর্ষণ করার জন্য যা একেবারেই ভাল নয়. যদিও এমন কোন সুস্থ মস্তিষ্কের ব্যবসায়ী খুঁজে পাওয়া মুশকিল হবে, যে কি না একটা শুধুমাত্র মাদক পাচারের উপর নির্ভর করা অঞ্চলে কোন রকমের বিনিয়োগ করতে যাবে. অন্য কোন রকমের অর্থনৈতিক ব্যবস্থা সেখানে নেই, কারণ কোন রকমের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা সেখানে নেই. কি মনে হয় খুব বেশী কি বিনিয়োগ করতে চায় এই রকম লোক খুঁজে পাওয়া যাবে, যদি বিনিয়োগ করতে হয় ধরুন সোমালিতে?আবার ঠিক ওই বিস্ফোরণের কয়েকদিন পরেই এবং রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকের ঠিক দুই দিন আগে কোসভার মিত্রোভিত্সা শহরে কোসভার পার্লামেন্টে সের্ব সদস্যদের প্রধান পেতারা মিলেতিচার উপর হামলা হয়, প্রিশ্তিনা অনুগত এই রাজনীতিবিদ বেঁচে আছেন, কিন্তু ব্যাপারটা হল, এই হামলা, হতেই পারে যে, ওজনের পাল্লা সমান করার উদ্দেশ্য নিয়ে আয়োজন করা হয়েছিল. নিজেরাই বিচার করে দেখুন: অনুসন্ধান চলছে, কিন্তু এক রকম ভাল করেই এমন কি রাষ্ট্রসংঘের স্থায়ী প্রতিনিধিদের কাছেও পরিস্কার যে, বিস্ফোরণ আয়োজন করে ছিল আলবেনিয় লোকেরা. আর মিলেতিচার উপর হামলা সংক্রান্ত বিষয়টা বেশী জটিল. তাকে মারতে চেয়ে থাকতে পারে চরম পন্থা সের্ব লোকেরা, যাদের জন্য সে একজন বিশ্বাসঘাতক, যে কিনা আলবেনিয় সরকারের সাথে হাত মিলিয়েছে. এই রকম একটা ধারণা আছে. তাই এটা জেনেই মিলেতিচার হত্যা পরিকল্পনা আলবেনিয় লোকেরাও করে থাকতে পারে! খুবই ভাল সুযোগ, - একই সঙ্গে নিজেদের অপছন্দের রাজনৈতিক নেতাকে হত্যা আর একই সঙ্গে সের্ব দের অভিযুক্ত করা, যে দেখো, ওরা এমন কি নিজেদের লোকেদের উপরও হামলা করে, আর আবার রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে গিয়ে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা ছড়ানো নিয়ে অভিযোগ করে! তার ওপরে আলবেনিয় দের আবার একটা স্বপক্ষে সাক্ষ্য রয়েছে – কে সেই লোকের উপরে হামলা করবে, যে কি না তাদের সঙ্গে সহযোগিতা করতে যাচ্ছে?আর শেষে বলা যেতে পারে যে, বোঝাই য়াচ্ছে, বেশীর ভাগ বিনা কারণে ক্ষতিগ্রস্থ লোকেদের কোন পেশা বা জাতি বিভাগ নেই. কিন্তু বিস্ফোরণের ফলে কোসভার মিত্রোভিত্সা শহরে মারা গেছেন একজন শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ ডাক্তার. তার টেলিফোন সারা শহরের লোক জানত. সের্ব পরিবারদের কথা মতো তিনি অসংখ্য বাচ্চার জীবন রক্ষা করেছেন. আর এইটা নিজে থেকেই সমস্ত ঘটে যাওয়া ঘটনার উপর কেমন যেন একটা ভয়ঙ্কর প্রতীকের মতো অর্থ হয়ে গিয়েছে.