ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ খবর খন্ডন করেছে যে, লন্ডন, বার্লিন ও দুবাই বিমান বন্দরে ইরানী বিমানে জ্বালানী ভরতে অস্বীকার করা হয়েছে. আজ তেহেরানে এক ব্রিফিংয়ে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সরকারী প্রতিনিধি বলেন, এ সব খবর বাস্তবতার সাথে সম্পূর্ণভাবে সুসঙ্গত নয়. আন্তর্জাতিক বিমান-যাত্রার সময় ইরানী বিমানগুলি পূর্ণমাত্রায় জ্বালানী পাচ্ছে অন্যান্য দেশের বিমানবন্দরে. এর প্রাক্কালে ইরানের বিমান কোম্পানিগুলির সমিতির সচিব মেহদি আলিয়ারী ইসনা সংবাদ সংস্থাকে জানান যে, গ্রেট-বৃটেন, জার্মানি ও সংযুক্ত আরব এমীরতন্ত্রের বিমানবন্দরে ইরানী বিমানে জ্বালানী ভরতে অস্বীকার করা হয়েছে, তেহেরানের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক এবং একতরফা মার্কিনী বাধানিষেধ ঘোষণার জন্য.