এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে রাশিয়ার অবস্থান দৃঢ় করা এবং এই বিশাল অঞ্চলের দ্রুত উন্নতিশীল অর্থনীতি গুলির সঙ্গে প্রসারিত সমাকলন – অদূর ভবিষ্যতের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ. প্রথমতঃ এই কাজ রাশিয়ার সুদূর প্রাচ্যের অঞ্চলের. খাবারভস্ক শহরে অধিবেশনে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ বক্তৃতা দিতে গিয়ে এই ঘোষণা করেছেন.    সুদূর প্রাচ্যের অঞ্চল, যেখানে প্রায় অসীম প্রাকৃতিক সম্পদের ভান্ডার রয়েছে, তার উন্নতির সম্ভাবনাও প্রচুর, কিন্তু এখনও এই অঞ্চল দেশের একটি সমস্যা হয়ে রয়েছে. প্রথম কারণ - জন সংখ্যা: এখান থেকে লোকেরা চলে যাচ্ছেন. দ্বিতীয় কারণ – অর্থনীতি: বেশীর ভাগ প্রদেশ এখানে রয়েছে রাষ্ট্রীয় অনুদানে নির্ভর করে. একই সময়ে এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের প্রতিবেশী দেশ গুলিতে বিগত বিশ্ব অর্থনৈতিক সঙ্কটের প্রভাব খুব বেশী পড়ে নি. তারা আগের মতই দ্রুত উন্নতি করছে. দিমিত্রি মেদভেদেভ মনে করেছেন সেই সব দেশ গুলির উত্সকে ব্যবহার করা অর্থাত্ তাদের সঙ্গে সহযোগিতা করা একটি অত্যন্ত প্রয়োজনীয় কাজ.    "এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশ গুলির সঙ্গে সহযোগিতা করা, আমার মতে খুবই গুরুত্বপূর্ণ উত্স হতে পারে সুদূর প্রাচ্যের অঞ্চলের উন্নতি করতে হলে এবং তা রাশিয়ার সামগ্রিক উন্নতির জন্যও প্রয়োজন, সকলে নিশ্চয়ই তা বুঝতে পারেন. এর মানে এই নয় যে, আমরা শুধুমাত্র এই দিকেই মনোযোগ দেবো, কারণ আমরা অবশ্যই একটি ঐক্যবদ্ধ দেশ এবং অবশ্যই কিছু কাজ সমাধান করব এক অঞ্চল থেকে অন্য অঞ্চলে মানুষ, পরিষেবা, কাজ ও জিনিস পত্র পাঠিয়ে. কিন্তু তা হলেও এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের সহযোগিতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ উন্নতির উত্স. আর এই সম্ভাবনা, এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশ গুলির সঙ্গে সম্পর্ক ও সহযোগিতার সম্ভাবনা, আমরা অবশ্যই বিশেষ করে সুদূর প্রাচ্যের অঞ্চল গুলির উন্নতির জন্য ব্যবহার করব".    বর্তমানে বিশ্বের অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক কেন্দ্র এশিয়ার দেশ গুলির দিকেই সরে যাচ্ছে. এই সমস্ত প্রক্রিয়া থেকে পাশে দাঁড়িয়ে থাকলে, রাশিয়ার ভবিষ্যতের জন্য তা অপরাধ হবে. রাষ্ট্রপতি পররাষ্ট্র দপ্তরের সামনে বিশেষ দায়িত্ব দিয়েছেন যে, সম্মুখের দিকে লক্ষ্য রেখে কূটনৈতিক ভাবে আমাদের এই অঞ্চলের নিরাপত্তার কাঠামো সম্বন্ধে ধারণাকে সকলের সামনে পেশ করতে. আর অর্থনীতি সম্বন্ধে যা করতে হবে, তা নিয়ে মেদভেদেভ উল্লেখ করেছেন রাশিয়ার ভূমিকা, যা এই অঞ্চলের আন্তর্জাতিক শ্রম বন্টনের ক্ষেত্রে রাশিয়া পালন করতে পারে.    "এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের বাজারে রাশিয়ার উচ্চ প্রযুক্তি বিষয়ে বিশেষত্ব দেখাই য়াচ্ছে. এটা অবশ্যই শক্তি সম্বন্ধে বলা যেতে পারে, যা নিশ্চয় করেই বলা যায় যে, উচ্চ প্রযুক্তির ফল ও আওতা, এই বিষয় নিয়ে যদি ঠিক করে কাজ করা যায়, তাহলে এক দেশ থেকে অন্য দেশে খনিজ তেল সরবরাহ করাতেই তা সীমাবদ্ধ থাকবে না. বিমান নির্মাণ ও অবশ্যই মহাকাশ সংক্রান্ত পরিষেবা. এই সমস্ত ক্ষেত্রে প্রয়োজন নতুন ব্যবস্থার, বহু পাক্ষিক প্রকল্প ও প্রযুক্তিগত সহযোগিতা এবং অন্যান্য প্রকল্প চালু করার".    এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে নিজেদের অবস্থান দৃঢ় করার জন্য রাষ্ট্রপতি প্রশাসনকে এই বছরের শেষের আগে পরিকল্পনা পেশ করার দায়িত্ব দিয়েছেন. অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে এখানে অবশ্যই শুল্ক বিহীণ অর্থনৈতিক অঞ্চল তৈরীর অভিজ্ঞতার প্রয়োজন আছে, বাণিজ্য বিষয়ে স্বাধীনতার বিষয়ে চুক্তি দরকার, আর তার সঙ্গে ছাড় সংক্রান্ত আইনের পরিমার্জন করার প্রয়োজন বলে উল্লেখ করেছেন রাষ্ট্রপতি.    দিনের দ্বিতীয় ভাগে মেদভেদেভ সুদূর প্রাচ্যের ইহুদী স্বয়ং শাসিত অঞ্চলের রাজধানী বিরোবিদজান এ গিয়েছিলেন. এখানে তিনি স্থানীয় এক বিবাহ অনুষ্ঠানের প্রাসাদে তিন টি সদ্য বিবাহিত দম্পতির বিবাহ অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন. রাষ্ট্রপতি সদ্য বিবাহিত দম্পতিদের শুভেচ্ছা জানিয়ে তাদের সঙ্গে দীর্ঘ ও সুখী সংসার জীবনের শুভ কামনা করে শ্যাম্পেনের পেয়ালা উঠিয়ে নিয়েছেন. বিয়ের কনে দের সাদা গোলাপের তোড়া উপহার দিতে গিয়ে তিনি বলেছেন, "এই বিয়ে করার মতো কাজ সত্যি যাদের স্নায়বিক দৌর্বল্য আছে, তাদের জন্য নয়, এ কাজ বারবার করার জন্য নয়, খুব ভাল হয় যদি তা জীবনে এক বারই ঘটে". রাষ্ট্রপতির তরফ থেকে নব দম্পতিদের যে উপহার পাওয়া হয়েছে, তা সত্যই রাজসিক. মেদভেদেভ অঞ্চলের রাজ্যপালকে দায়িত্ব দিয়েছেন সমস্ত নব দম্পতিদের নতুন ফ্ল্যাট দিতে.