রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ ব্যাপারে সন্তোষ প্রকাশ করেছে যে, কির্গিজিয়ার নতুন সংবিধান গ্রহণ সংক্রান্ত রবিবারের ভোটদান শান্তভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে, কোনো রকম বাড়াবাড়ি ছাড়াই. রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে যে, নাগরিকদের বিপুল সক্রিয়তা এবং সংবিধানের খসড়ার প্রতি ব্যাপক সমর্থন কির্গিজিয়াকে রাষ্ট্রপতির প্রজাতন্ত্র থেকে পার্লামেন্টারী প্রজাতন্ত্রে রূপান্তরিত করছে. পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মনে করিয়ে দিচ্ছে যে, ভোটদানের ব্যবস্থা রাশিয়াতেও করা হয়েছিল, যেখানে কির্গিজিয়ার নাগরিকদের জন্য দশটি নির্বাচনী কেন্দ্র খোলা হয়েছিল. রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আশা করে যে, গণভোট বন্ধুসুলভ কির্গিজিয়ায় রাজনৈতিক স্থিতিশীলতায় সাহায্য করবে. গণভোটে অংশ নিয়েছে ভোটদানের অধিকার থাকা প্রায় ৭০ শতাংশ নাগরিক. তার মধ্যে প্রায় ৯০ শতাংশ নতুন সংবিধানের প্রতি সমর্থন জানিয়েছে.