বিগত ছুটির দিনগুলিতে জি-২০ দেশগুলির নেতারা বিশ্ব সঙ্কট অতিক্রমের নীতি নিয়ে কাজ করেছেন. তবে সমস্ত ব্যাপারে একমত অর্জন করা সম্ভব হয় নি.    যে বিষয়ে সকলে একমত, তা হল এই যে, সঙ্কটের পরে বিশ্ব অর্থনীতি যদিও পুনর্স্থাপিত হতে শুরু করেছে, তবুও তা এখনও খুবই অস্থিতিশীল এবং সমরূপ নয়. আর সেইজন্য প্রচেষ্টা সমাবেশ করা এবং মিলিতভাবে একদিকে এগিয়ে যাওয়া প্রয়োজন. যেমন, বাজেটের ঘাটতি হ্রাস করা. শীর্ষ সম্মেলনের শেষ বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে যে, আগামী বছর থেকে অংশগ্রহণকারী দেশগুলির এ সূচকটি কমানোর জন্য কাজ শুরু করা উচিত, যাতে ২০১৩ সালে তা অন্ততপক্ষে অর্ধেক হয়ে যায়.    তাছাড়া, আর্থিক সংস্থাগুলির দেউলিয়াপনার মূলনীতি এবং ঘাটতি বন্টনের সময় করদাতাদের রক্ষার ব্যবস্থা সর্বসম্মত করা হয়েছে. নতুন রিজার্ভ মুদ্রা প্রবর্তনের বিষয়টির প্রতি অপেক্ষাকৃত কম উদ্যম প্রকাশিত হয়েছে. তবুও, বছর দুয়েক আগে উক্ত প্রশ্নের প্রতি সম্পূর্ণ অনুপলব্ধি প্রকাশিত হলেও আজ ইউরো মুদ্রা যখন সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে, ক্রমেই বেশিসংখ্যক দেশ এ ধারণার সাথে একমত হচ্ছে, উল্লেখ করেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ.   দিমিত্রি মেদভেদেভ বলেন, এখন এ ধারণা কারুরই বিরূপ মত জাগায় না. অবশ্যই, এখনই নতুন রিজার্ভ মুদ্রা প্রবর্তনের মেয়াদ নির্ধারণ অর্থহীন, দেখা দরকার অবস্থা কিরকম দাঁড়ায়. তবে, এ প্রশ্নটি যথেষ্ট নিকট ভবিষ্যতের. রাশিয়ায় আন্তর্জাতিক আর্থিক কেন্দ্র গঠনের সাথে সাথে সমান্তরালভাবে এ নিয়েও কাজ চালিয়ে যাব আমরা. এখন এটা আর অলীক কল্পনা নয়, যথেষ্ট কার্যকরী ধারণা.   তবে শীর্ষ সম্মেলনের অংশগ্রহণকারীরা সমস্ত পথে এক সাথে এগুতে প্রস্তুত নয়. অর্থনীতির স্থিতিশীলকরণের অতিরিক্ত তহবিল গঠনের জন্য ব্যাঙ্ক অথবা আর্থিক কাজকর্মের ক্ষেত্রে বিশেষ আন্তর্জাতিক কর প্রবর্তনের প্রস্তাবও শেষ দলিলে স্থান পায় নি. রাশিয়া, চীন ও কানাডা সহ বহু দেশ মনে করে যে, তা ব্যাঙ্ক সার্ভিসের মূল্য যথেষ্ট বাড়াবে. আর ভাল হবে যদি প্রশ্নটি জাতীয় কর্তৃপক্ষের মীমাংসার জন্য ছেড়ে দেওয়া হয়. আরও একসারি প্রশ্ন সেওলে পরবর্তী সাক্ষাতে আলোচনার জন্য সরিয়ে রাখা হয়েছে.   মোটামুটিভাবে, শীর্ষ সম্মেলনের ফলাফল সম্পর্কে পর্যবেক্ষকরা স্পষ্ট ধারণা পান নি. সঠিকভাবে বললে, দুটি সম্মেলন সম্পর্কে- জি-৮ এবং জি-২০ সম্পর্কে, এই প্রথম ব্যয় সঙ্কোচের জন্য পরীক্ষামূলকভাবে একই জায়গায়, প্রকৃতপক্ষে একই সময়ে এগুলি আয়োজিত হয়েছিল. গোড়ায় ভাবা হয়েছিল যে, প্রবীণদের ক্লাব আলোচনা করবে রাজনৈতিক প্রশ্নাবলি, আর অপেক্ষাকৃত বিস্তৃত বিন্যাসে আলোচিত হবে বিশ্ব অর্থনীতির বিষয়গুলি. কিন্তু কার্যক্ষেত্রে দেখা গেল যে পুনরাবৃত্তি করা হয়েছে জি-৮ দেশগুলির আগে ঘোষিত স্থিতি এবং জি-২০ দেশগুলির বিতর্কের তালিকায় পরস্পরের আলোচনার বিষয়ের তালিকার আংশিক পুনরাবৃত্তি দেখতে পাওয়া যায়.    অবশেষে এমনকি একটি বিন্যাসকে বাতিল করার কথাও ওঠে. তবে, "উপর মহলের ক্লাব" নিজের স্থিতি সহজে ছেড়ে দিয়ে অপেক্ষাকৃত গণতান্ত্রিক জি-২০তে মিশে যাবে বলে মনে হয় না. তাছাড়া অপেক্ষাকৃত সীমিত বিন্যাসে সহমতে আসা সহজ, যা মাঝে মাঝেই বহুপাক্ষিক, তবে নিষ্ফল বিতর্কের চেযে বেশি ফলপ্রসূ হয়.    যাই হোক না কেন, এমন সব সিদ্ধান্ত তাড়াতাড়ি গৃহীত হয় না. আপাতত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে জি-৮ এবং জি-২০ সম্মেলন আলাদা আলাদা সময়ে আয়োজনের. ২০১১ সালে ফ্রান্সে আয়োজিত হবে জি-৮  শীর্ষ সম্মেলন ঐতিহ্য অনুযায়ী গ্রীষ্মকালে, আর জি-২০ শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে নভেম্বরে. রাশিয়াও এ ইঙ্গিত দিয়েছে যে, সে পছন্দ করে উভয় বিন্যাসকেই বজায় রাখার, এবং ঘোষণা করেছে যে ২০১৪ সা জি-৮ সম্মেলন এবং ২০১৩ সালে জি-২০ সম্মেলন আয়োজনে ইচ্ছুক.