যৌথ নিরাপত্তা চুক্তি সংস্থার সাধারন সম্পাদক নিকোলাই বরদ্যুঝা ও তাঁর নেতৃত্বে এক সরকারি কার্যকরী পরিষদের সদস্যরা আজ কিরগিজিয়া পৌঁছচ্ছে সেই দেশের পরিস্থিতির মূল্যায়ণের জন্য. কয়েকদিন আগে সেখানে জাতিগত গৃহ যুদ্ধের পর এই দল নির্ধারণ করবেন, কি করে এই দেশকে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার জন্য সহায়তা করা সম্ভব হয়. প্রতিনিধি দলে আর্মেনিয়া, কাজাখস্থান, কিরগিজিয়া, রাশিয়া ও তাজিকিস্থানের প্রতিনিধিরা রয়েছেন. তাছাড়া রয়েছেন যৌথ নিরাপত্তা সংস্থার কেন্দ্রীয় দপ্তরের কর্মীরা. এর আগে সেই দেশের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের প্রধান কেনেশবেক দুশেবায়েভ জানিয়েছেন যে, কিরগিজ ও উজবেক দের মধ্যে জাতিগত হিংসার উসকানি এসেছে দেশের বাইরের সন্ত্রাসবাদী ও চরমপন্থী ধর্মের নামে চলা দলের থেকে. এই সমস্তই করা হয়েছে ২৭ জুন ঘোষিত সংবিধান পরিবর্তনের জন্য গণ ভোট বানচাল করার জন্য.