রাশিয়ার সিয়েভেরোদ্ভিনস্কে সেভমাশ কারখানাতে ১৯৬০ সালে তৈরী হওয়া টাইটানিয়াম ধাতু দিয়ে তৈরী বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুত গতির পারমানবিক শক্তি চালিত ডুবোজাহাজ কে -২২২ কে কেটে ফেলা হয়েছে, এর রিয়্যাক্টরটি এবারে এক জন হীণ কোল উপদ্বীপে নিয়ে যাওয়ার জন্য জাহাজে চাপানো হয়েছে. দীর্ঘ দিন ধরে এই জাহাজ টি তৈরী হয়েছিল, এর বিশাল খরচের জন্য নাম দেওয়া হয়েছিল সোনার মাছ. জাহাজে ব্যালিস্টিক মিসাইল রাখা হত এবং ১৯৮৯ সাল পর্যন্ত রাশিয়ার উত্তরের নৌ বাহিনীতে জাহাজটি কাজ করেছে. ১৯৭০ সালে জাহাজটি জলের নীচে ৪৪, ৭ নট বা ৮৩ কিলোমিটার / ঘন্টা গতিতে এক গতির বিশ্ব রেকর্ড স্থাপন করেছিল, যা আজও কোন ডুবোজাহাজ বিশ্বে ভাঙতে পারে নি.