আজ পরীক্ষা মূলক ভাবে মঙ্গল অভিযানের মহড়া শুরু হচ্ছে. এই লাল গ্রহে কৃত্রিম অভিযান করতে চলেছেন ছয় জন অভিযাত্রীর দল. কৃত্রিম এই অভিযান চলবে দেড় বছর. এই দলে আছেন তিন জন রাশিয়ার লোক, - তাঁদের একজন দলের কম্যাণ্ডার, এ ছাড়া আছেন একজন ফরাসী, ইতালির লোক এবং চীনের লোক. দেড় বছর এই মঙ্গল অভিযাত্রীরা বাইরের বিশ্বের থেকে অবরুদ্ধ অবস্থায় থাকবেন. এই মহাকাশযানের মডেলে মঙ্গল অভিযানের সময়ে মানুষের জন্য আসলে যে রকম হতে পারে তার প্রায় সমান ব্যবস্থা করা হয়েছে. যাত্রীরা ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন না, টেলিভিশন দেখতে পারবেন না, রেডিও শুনতে পারবেন না. বাইরের বিশ্বের সঙ্গে একমাত্র যোগাযোগের রাস্তা হল উড়ান নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র. এই পরীক্ষার লক্ষ্য হবে বাস্তবে মঙ্গল অভিযান হলে কি হতে পারে তার সম্বন্ধে অভিজ্ঞতা অর্জন করা এবং প্রায় দেড় বছর ধরে একসাথে থাকতে বাধ্য এই রকম মানুষের দলের মধ্যে একে অপরের প্রতি ব্যবহার কি হয় তা দেখা.