রাশিয়ার সিয়েভেরোদ্ভিনস্কে "সেভমাশ" জাহাজ তৈরী কারখানার ডকে ভারতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের পর্যবেক্ষকেরা তাঁদের কাজের পর গত ২০০৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসের তুলনায় বিমান বাহী জাহাজ অ্যাডমিরাল গর্শকভের আধুনিকীকরণ কাজের যথেষ্ট অগ্রগতি হয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন. এই পর্যবেক্ষক দলের নেতৃত্ব করছেন সামরিক জাহাজ উত্পাদন ও ক্রয় দপ্তরের প্রধান অফিসের নেতা ভাইস অ্যাডমিরাল নাদেল নিরঞ্জন কুমার. তাঁর বক্তব্য আজ ভারতের "টাইমস অফ ইন্ডিয়া" কাগজে প্রকাশিত হয়েছে. "এই বিশাল ভারী জাহাজে শতকরা ৯৯ ভাগ কাঠামো গত কাজ এবং শতকরা ৫০ ভাগ বিভিন্ন রকমের পরিবাহী তারের কাজ শেষ হয়েছে, প্রায় সমস্ত বড় আকারের যন্ত্র, মোটর ও ডিজেল জেনারেটর জায়গা মতো লাগানো হয়েছে". ভারতীয় নৌ বাহিনীতে ভরসা করা হয়েছে যে, এই বিমান বাহী জাহাজ, যা ভারতীয় নৌ বাহিনীতে বিক্রমাদিত্য (যে সব কিছু পারে) নামে পরিচিত হবে, তা সামুদ্রিক পরিস্থিতিতে পরীক্ষার জন্য আগামী ২০১১ সালের শুরুতেই তৈরী হয়ে যাবে, এই জাহাজটি ভারতকে রপ্তানী করার কথা আছে আগামী ২০১২ সালের ডিসেম্বর মাসে.