0রাশিয়ার কাজের বাজার ধীরে হলেও সঙ্কট থেকে বেরিয়ে আসছে. বেকার লোকের সংখ্যা প্রতি সপ্তাহেই ৪০০০০ করে কমে এই বছরের মাঝামাঝি বিশ লক্ষ লোকের কম হতে পারে. এই বিষয়ে খবর দিয়েছেন উপ স্বাস্থ্য এবং সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রী ম্যাক্সিম তপিলিন.

    মন্ত্রণালয়ে তথ্য অনুযায়ী সর্বমোট বেকার লোকের সংখ্যা বর্তমানে রাশিয়াতে বিশ লক্ষ লোক, যাঁদের মধ্যে শুধু একের তৃতীয়াংশই কাজের বাজারের হিসাবের খাতায় রয়েছেন. বেশীর বাগ বেকার হলেন মহিলা, পেনসনের কাছাকাছি বয়সের লোক ও ২৮ বছরের কম বয়সী লোকেরা, যাঁদের কাজের বেশী অভিজ্ঞতা নেই. কিন্তু ভালর দিকে যে যাচ্ছে, তা দেখাই যাচ্ছে. অনেক বেকার লোকই আবার করে প্রশিক্ষণ নিয়ে নিজেদের আগের কাজের ধারা পাল্টাতে চাইছেন. বিশেষ মনোযোগ দেওয়া হচ্ছে, যে সমস্ত অঞ্চলে সামাজিক চাপ প্রচুর সেই সব জায়গায়, এই প্রসঙ্গে ম্যাক্সিম তপিলিন বলেছেন:

    "প্রথম থেকেই অনেক লোক অস্থায়ী কাজে যোগ দিয়েছেন. অনেকেই নিজের ব্যবসা খেলার জন্য সরকার থেকে সাহায্য পাচ্ছেন, অথবা নানারকমের ট্রেনিং নিতে ব্যস্ত. আমরা উত্তর ককেশাসের রাজ্য গুলির জন্য আলাদা করে ব্যবস্থা নিয়েছিলাম. সোচীতে শীত অলিম্পিকের জন্য তৈরী হওয়া জায়গা গুলির সঙ্গে বেকার লোকের সংখ্যা কমানোর ব্যবস্থাও নিয়েছিলাম".

    বিশেষ করে বেকার সমস্যা নিয়ে চিন্তা করা হয়েছে সেই সমস্ত একটিই বিশেষ ধরনের উত্পাদনের সঙ্গে জড়িত শহর গুলির জন্য. বিশেষ সরকারি প্রোগ্রাম নেওয়া হয়েছে এই সমস্ত বহু মানুষ অধ্যুষিত জায়গার কল কারখানা গুলির কাজের ধারা পাল্টানোর জন্য. কারণ যাদের কাজ গেছে, সেই সব লোকেদের পক্ষে তাদের নিজেদের শহরে কাজ পাওয়া কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছিল. তার ওপরে কিছু একক শিল্পের শহরে বেকারত্বের পরিমান শতকরা বিশ শতাংশ অতিক্রম করেছে.

    "এই সমস্ত একক শহর গুলির জন্য আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে, তাদের জন্য বিশেষ অর্থনৈতিক সাহায্যের ব্যবস্থা করা হবে — প্রায় তিন বিলিয়ন রুবল (১০০ মিলিয়ন ডলারেরও বেশী) বরাদ্দ করা হয়েছে. ম্যাক্সিম তপিলিন বলেছেন যে, এই অর্থ দিয়ে বেকার নাগরিক দের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে. ধরা যাক যেমন, তাতারস্থানের শহর কামস্কিয়ে পলিয়ানি, সেখানে নতুন প্রযুক্তি ব্যবহার করার জন্য বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে. খনিজ তেল পরিশোধনের জন্য একেবারে বিরল ধরনের তৈল রসায়নের প্রযুক্তি ব্যবহার করে অনেক ছোট কারখানা খোলা হয়েছে. সেই সব কারখানাতে খনিজ তেল পরিশোধনের কারখানা থেকে পাওয়া সারাংশ থেকে নানা ধরনের ফেনা, সুতো, রং তৈরী করা হচ্ছে. খুবই ছোট ধরনের কারখানা, প্রায় সবই স্বয়ংক্রিয়".

    ইতিবাচক লক্ষণ দেখা গেলেও, রাশিয়ার প্রশাসন এই বছরে বেকার লোকের পরিসংখ্যান কমের দিকে হিসাব করার কোন রকমের চেষ্টা করছেন না, প্রাথমিক হিসাবে তা হওয়ার কথা ছিল বাইশ লক্ষ লোক. আসলে সংখ্যা কিছু কম হবে এবং যা অর্থ বাড়তি হবে তা রাজ্য গুলি তাদের স্থানীয় বেকারত্ব প্রতিষেধক কর্মসূচীতে ব্যবহার করতে পারবে.

    প্রায়ই যে বিষয়টি উত্থাপিত হয়ে থাকে বিদেশী লোকেদের কর্ম সংস্থান সম্বন্ধে, সেখানে মন্ত্রণালয় আগের হিসেব মতো শতকরা তিরিশ ভাগের বেশী রিজার্ভ জায়গা আর বাড়াতে চায় না. শুধুমাত্র সোচী শহরের জন্যই আলাদা করে ব্যবস্থা করা হয়েছে, যেখানে আগামী ২০১৪ সালের শীত অলিম্পিকের জন্য খেলাধূলার জায়গা তৈরী করা হচ্ছে. এই তালিকাতে ভ্লাদিভস্তক শহরও রয়েছে, কারণ সেখানে ২০১২ সালে এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় উপকূলের দেশ গুলির অর্থনৈতিক বিষয়ে শীর্ষ বৈঠক হবে বলে.