টি ইউ – বিমানের ব্র্যান্ড, যা এক ডাকে সবাই সারা পৃথিবীতে চেনে. কিন্তু আসলে এটা এই বিমান গুলি যাঁরা নির্মাণ করেছেন, তাঁদের পদবির প্রথম দুটি অক্ষরও বটে – কিংবদন্তী সম বংশ পরম্পরায় বিমান নির্মাতা আন্দ্রেই তুপোলেভ ও তাঁর সু যোগ্য পুত্র আলেক্সেই তুপোলেভ. আজ আলেক্সেই তুপোলেভের ৮৫ তম জন্ম দিবস.

    তাঁর জীবন খুব অল্প বয়স থেকে এরোপ্লেন বানানোর সঙ্গেই জড়িত ছিল, অন্যরকম হওয়ার পথও ছিল না, কারণ পরিবার ছিল বিমান নির্মাতার. ১৯৪২ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়ে আলেক্সেই তাঁর পিতার বিখ্যাত ডিজাইনার ব্যুরোতে মাত্র সতেরো বছর বয়সে কর্মী হিসাবে যোগ দেন. মস্কো এভিয়েশন ইনস্টিটিউট শেষ করার পরও তিনি সেখানেই কাজ চালিয়ে যেতে থাকেন. তাঁর সহযোগিতাতেই বানানো হয়েছিল বিখ্যাত বোমারু জেট বিমান টি ইউ – ১৬ এবং স্ট্র্যাটেজিক এভিয়েশন বিমান টি ইউ ৯৫. তাঁর নেতৃত্বে তৈরী হয়েছিল এক বিশাল সারি পাইলট বিহীণ ওড়ার যন্ত্র, তার কয়েকটি আজও রাশিয়ার সামরিক বাহিনীতে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে.

    কিন্তু সবচেয়ে বড় ও গুরুত্বপূর্ণ কাজ আলেক্সেই তুপোলেভের জীবনে ছিল বিশ্বের প্রথম শব্দাতীত যাত্রী বাহী বিমান টি ইউ ১৪৪ সৃষ্টি করা. তুপোলেভ বিমান ডিজাইন ব্যুরোর ডিরেক্টর ভ্লাদিমির রিগমান্ত বলেছেন:

    "এই বিমানের কাজ শুরু হয়েছিল ১৯৬৩ সালে, ৬৮ সালেই প্রথম পরীক্ষা মূলক শব্দাতীত বিমান আকাশে ওড়ে. আন্দ্রেই তুপোলেভের মৃত্যু দিন পর্যন্ত আলেক্সেই ছিলেন এই বিমানের প্রধান নির্মাতা, তারপরে এই বিমানের কাজ তিনি করেছিলেন জেনারেল ডিজাইনার বা সর্ব প্রধান হিসাবেই. যদি টি ইউ ১৪৪ সম্বন্ধে বলতেই হয়, তাহলে বলা উচিত্ হবে যে, এই বিমান ছিল রাশিয়ার জাতীয় বিমান নির্মাণ শৈলীর সেরা উদাহরণ, তার শেষ পরিবর্তনের পরে তা ব্রিটিশ ও ফ্রান্সের সম্মিলিত এরোপ্লেন কনকর্ডের চেয়ে কোন অংশেই কম ছিল না".

    ২০০১ সালে তাঁর মৃত্যু হওয়ার আগে পর্যন্ত তিনি যে গোষ্ঠীর হয়ে কাজ করছিলেন, তারা সমানে বিমান নির্মাণ বিষয়ে পরিবর্তন আনছিলেন, যেমন, টি ইউ ১৫৪ বিমানটি পরিমার্জনের পর টি ইউ ১৫৪ এম নামে পরিচিত হয়েছিল. তাতে উড়ানের প্রযুক্তি ও ব্যবহারিক গুণের বৃদ্ধি হয়েছিল, একই সঙ্গে বেড়েছিল যাত্রীদের সুখ সুবিধার বিষয় গুলি. খুব ভাল করেই লোকে চেনে টি ইউ ২০৪ নামের বিমানটি, যেখানে স্বয়ংক্রিয় নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা ও খুবই উচ্চমানের উড়ানের প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে, একই ধরনের বিমানের মধ্যে এই বিমানটি প্রায় অর্ধেক কম জ্বালানী ব্যবহার করে.

    এই বিখ্যাত বিমান নির্মাতার জীবনের শেষ দশ বছর রাশিয়ার গত শতকের নব্বই এর দশকের টালমাটাল অবস্থায় কেটেছে, দেশে রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সঙ্কট ছিল, এমন কি তখনও আলেক্সেই তুপোলেভ তাঁর নিজের নতুন প্রকল্প নিয়ে খুবই উদ্যোগ নিয়ে কাজ করেছিলেন. সেই সময় নিয়ে ভ্লাদিমির রিগমান্ত বলেছেন:

    "ওনার নিজের বিষয় ছিল আলাদা, তিনি শব্দাতীত এরোপ্লেন নিয়ে কাজ করে যাচ্ছিলেন, এ ছাড়া তিনি আকাশ ও মহাকাশে সমান ভাবে বিচরন করতে পারে এই রকমের বিমান সৃষ্টি করছিলেন, ডিজাইনার হিসাবে তাঁর জুড়ি মেলা ভার ছিল, অংশতঃ টি ইউ ১৬ ও টি ইু ৯৫ এর গঠনের ডিজাইন সেই সময়ের জন্য সবচেয়ে উঁচু প্রযুক্তিরই হয়েছিল.

    অবশ্যই যদিও আলেক্সেই তুপোলেভ অনেক কিছুই করেছেন, তবুও অনেক গুলি ইন্টারেস্টিং প্রকল্প এখনও কাগজে কলমেই রয়ে গেছে, তাঁর আকাশ মহাকাশ যান বা শব্দাতীত বহু যানের নির্মাণ এখনও হয়নি, কিন্তু যত রকমের ধারণা তিনি জমা করে রেখে গেছেন, তা আজও ব্যবহার করা চলছেই".