দক্ষিণ ওসেতিয়ায় আজ প্রজাতন্ত্রের স্বাধীনতার জন্য সংগ্রামের বছরগুলিতে নিহতদের স্মৃতিতে শোক অনুষ্ঠান হচ্ছে. জার নামে গ্রামে স্মৃতি ও শোক দিবসে পুষ্পমাল্য অর্পন করা হয়েছে ১৮ বছর আগে বিপর্যয়ে নিহতদের সমরণিকে, তার পরে চলছে সভা. ১৯৯২ সালের ২০শে মে জর্জিয়ার সশস্ত্র বাহিনী সেখানে শরণার্থীদের গাড়ির সারির উপর গুলি বর্ষণ করে, আর এ শরণার্থীদের মধ্যে প্রধাণত ছিল নারী, শিশু ও বৃদ্ধরা. সে সময় মারা গিয়েছিল ৩২ জন, আরও ১৬ জন আহত হয়েছিল. ২০০৭ সালে বিপর্যয়ের জায়গায় স্মৃতি-স্মরণিক তৈরি করা হয়. বিগত কয়েক বছরে ২০শে মে শুধু জার বিপর্যয়ের দিবস হিসেবেই নয়, প্রজাতন্ত্রের স্বাধীনতার জন্য সংগ্রামে প্রাণ বলি দেওয়া সকলের স্মৃতির দিবস হিসেবেও পালিত হচ্ছে. শোক অনুষ্ঠানের সময় আকাশে ছাড়া হয়েছে জার গ্রামে নিহতদের সংখ্যা অনুযায়ী বেলুন এবং সঙ্ঘর্ষে সমস্ত নিহতের স্মৃতিতে একটি বড় বেলুন, স্খিনওয়ালের কেন্দ্রীয় স্কোয়ারে বসানো হচ্ছে ১১৭টি মিনার, যা যুদ্ধে ধ্বংস হওয়া দক্ষিণ ওসেতীয় গ্রামগুলির প্রতীক.