ইস্রাইলের বিমান-পরিবহণ বিভাগ স্বীকার করেছে যে, রাশিয়ার "ট্রান্সআয়েরো" বিমান কোম্পানির বিমানের যাত্রা বহু ঘন্টা ধরে আটকে রাখার উদ্দেশ্য ছিল রাশিয়ার কর্তৃপক্ষকে ইস্রাইলী চার্টার বিমানের যাত্রায় অনুমতি দিতে বাধ্য করা. তিন দিন আগের ঘটনাটি রাশিয়ার ফেডারেল বিমান পরিবহণ এজেন্সির বিক্ষোভ জাগায়. রাশিয়ার কর্তৃপক্ষ ইস্রাইলের "আর্কিয়া" বিমান কোম্পানির একটি বিমানকে সাঙ্কত-পিতারগুর্গ থেকে মস্কোয় যেতে নিষেধ করেছিল, যেখানে ২৬০ জন যাত্রী তেল-আভিভ যাত্রার জন্য তার অপেক্ষা করছিল. এ নিষেধের কারণ ছিল ইস্রাইলী বৈমানিকদের রাশিয়ার ভিসা না থাকা. রাশিয়া ও ইস্রাইলের মাঝে ভিসা ছাড়া যাতায়াতের ব্যবস্থা চালু আছে ২০০৮ সাল থেকে, তবে তা শুধু পর্যটকদের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য.