দেশে নতুন করে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার ও প্রসারের জন্য রাশিয়ার সরকার চাইছে বিদেশী বিনিয়োগকে কাজে লাগাতে. লন্ডন শহরে ব্রাজিল – রাশিয়া – ভারত ও চীনে অর্থাত্ ব্রিক দেশ গুলিতে বিনিয়োগের সুযোগ নিয়ে আয়োজিত কনফারেন্সে বক্তৃতা দিতে গিয়ে রাশিয়ার প্রথম উপ প্রধান মন্ত্রী ইগর শুভালভ এই ঘোষণা করেছেন.

    এই কনফারেন্স আন্তর্জাতিক বিনিয়োগ ব্যাঙ্ক গোল্ডম্যান স্যাক্স আয়োজন করেছে. বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে পাঁচশরও বেশী ব্যবসায়ী অংশগ্রহণ করছেন. মূলতঃ এঁরা বড় বিনিয়োগ কারী, ব্রিটেনের রাজধানীতে তাঁরা চারটি দ্রুত উন্নতিশীল দেশে মূলধন বিনিয়োগের সুযোগ ও সুবিধা নিয়ে পর্যালোচনা করছেন.

    রাশিয়ার প্রসঙ্গে বলা যেতে পারে যে, এখানে বিনিয়োগের পরিস্থিতি ভালর দিকেই যাচ্ছে. আর কাজ চলছে যথেষ্ট দ্রুত, যা বেশ কয়েকটি কারণের জন্যই করা সম্ভব হয়েছে. দেশে বিশ্ব সঙ্কটের প্রভাব পার হয়ে বর্তমানে সম্ভব হয়েছে অর্থনৈতিক উন্নতির হার দ্রুত করার, সরকার যে উদ্ভাবনী প্রযুক্তি অর্থনীতিতে প্রয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে, সে কথা হিসাবে না আনলেও উন্নতি লক্ষ্যনীয় হচ্ছে. আজ রাশিয়ার অর্থনীতির বেশীর ভাগটি জ্বালানী শক্তি নিষ্কাশন ও তার রপ্তানী নির্ভর. তাই, যেমন ইগর শুভালভ উল্লেখ করেছেন যে, বিদেশী বিনিয়োগকারীদের পক্ষে রাশিয়ার সর্বত্র বিনিয়োগ করার, বিশেষত রাশিয়ার ভিতরের অঞ্চলে বিনিয়োগের সুযোগ প্রচুর. কিন্তু বর্তমানে বিনিয়োগকারীদের পক্ষ থেকে আগের চেয়ে অন্য রকমের দৃষ্টিকোণ আশা করা হয়েছে. আর উচ্চ প্রযুক্তি যুক্ত শিল্পে বিনিয়োগের দিকে মোড় ফেরানোতে উত্সাহ যে দেওয়া হবেই, সেই বিষয়ে রাশিয়ার হায়ার স্কুল অফ ইকনমিক্সের প্রফেসর আলেক্সেই ক্রাসাভিন বলেছেন:

    "রাশিয়ার বিনিয়োগ নীতিতে উচ্চ প্রযুক্তি প্রকল্পের বিষয়ে বিনিয়োগ আনার প্রচেষ্টা একটা কষ্টকর বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে, সকলেই তৈরী আছেন খনিজ তেল, গ্যাস, খুচরো বিক্রয় ও শো বিজনেসে টাকা ঢালতে, কিন্তু উচ্চ প্রযুক্তি ক্ষেত্রে বিনিয়োগ রাশিয়াতে সব সময়েই বিনিয়োগ বাজারের বাইরের দিকেই ছিল. বর্তমানে রাশিয়ার প্রশাসন মনে করেছেন এ ক্ষেত্রে বিশেষ ধরনের ছাড় দিতে, এই ধরনের ছাড় বিশেষ অর্থনৈতিক এলাকা সংক্রান্ত ও উদ্ভাবনী প্রযুক্তি এবং নতুন প্রযুক্তির উন্নয়ন সংক্রান্ত আইনের থেকে উদ্ভূত হয়েছে. এখানে বলা হয়েছে তিনটি বিভিন্ন ধরনের কর ও শুল্ক ছাড় দেওয়ার কথা, সব মিলিয়ে এই ছাড়ের পরিমান রাজস্ব আদায়ের প্রায় ৭- ৮ শতাংশ. রাশিয়াতে নতুন প্রযুক্তি বিষয়ে বিনিয়োগে ঝুঁকি মূল্যায়ণ করা হয়েছে এতটাই".

    বিনিয়োগের ক্ষেত্রে উচ্চ প্রযুক্তি বিষয়ে সুবিধাজনক ব্যবস্থা করে দেওয়া ছাড়া দেশে আরও কিছু আকর্ষণীয় বিষয় রয়েছে, রাশিয়াতে প্রশিক্ষিত কর্মীর সংখ্যা বেশী, দেশে উচ্চ প্রযুক্তি সহ প্রকল্পের বিষয়ে আগ্রহ রয়েছে. শেষে বলা যেতে পারে যে, ভাল রকমের আইন ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে, এ ক্ষেত্রে বিশেষ করে বলা দরকার যে, সরকার দেশে বিদেশী বিশেষজ্ঞ দের আসার বিষয়ে ব্যবস্থা নিচ্ছেন. এই কারণে একটি আইন বর্তমানে রাশিয়ার লোকসভার বিবেচ্য হয়ে রয়েছে, আশা আছে যে, তা বসন্তের অধিবেশন শেষের আগেই নেওয়া হবে.

<sound>