মেক্সিকো উপসাগরের তলদেশে বৃটিশ পেট্রোলিয়াম কোম্পানির বিশেষজ্ঞরা রক্ষা-আবরণ নামানো শুরু করেছেন, যাতে দুর্ঘটনায় পড়া ড্রিল-হোল (তৈলকূপ)ঢেকে দেওয়া যায়. এই ১০০ টন ওজনের কনক্রীটের বিন্যাসটি ঠিক জায়গায় বসানোর জন্য রিমোট কনট্রোল্ড বিশেষ সাবমেরিন ব্যবহার করার কথা. এ গম্বুজটি নামানো হবে ১৫২০ মিটার গভীরতায়. এ বিন্যাসটি কাজের জন্য সম্পূর্ণভাবে তৈরী হবে রবিবার, এবং তা তেলের নির্গমণ ৮৫ শতাংশ বন্ধ করবে, তবে ইঞ্জিনিয়াররা এ অভিয়ানের সাফল্যের গ্যারান্টি দিতে পারছেন না –এত গভীরতায় এ ধরনের গম্বুজ আগে কখনও ব্যবহৃত হয় নি. এ ধারণা কার্যকরী হলে জলতলের ড্রিল-হোল থেকে বের হওয়া তেলের বেশির ভাগ এ গম্বুজের সাহায্যে পাম্প করা যাবে বিশেষ তৈলবাহী জাহাজে. আগে দুর্ঘটানায় পড়া তিনটি ড্রিল-হোলের সবচেয়ে ছোটটি বন্ধ করা সম্ভব হয়েছে বিশেষ ভাল্ভের সাহায্যে. তবে, বিশেষজ্ঞদের মতে, অন্য দুটি ক্ষেত্রে এ ব্যবস্থা ব্যাবহার করা সম্ভব নয়. অজানা কারণে ২০শে এপ্রিল প্ল্যাটফর্মে বিস্ফোরণ ঘটে এবং অগ্নিকান্ড শুরু হয়. বেশির ভাগ কর্মীকে অপসারণ করা হয়, তবে ১১ জন মারা যায়. কয়েক ঘন্টার মধ্যে প্ল্যাটফর্মটি ডুবে যায় এবং ড্রিল-হোল ক্ষতিগ্রস্ত করে, আর তা থেকে তেল বের হয়ে সমুদ্রে পড়তে থাকে দিনে প্রায় ৭ লক্ষ ৬০ হাজার লিটার করে.