আগামী দুই এক বছরের মধ্যেই রাশিয়ার প্রতিরক্ষা বিভাগে ব্যাপক পরিবর্তন হতে যাচ্ছে.এর ফলে দীর্ঘ ১৫০ বছরের রাশিয়ার সেনাবাহিনীর পরিবর্তন আনা হচ্ছে.সেনাবাহিনীকে ঢেলে সাজানোর নতুন এই কার্যপ্রনালী নিয়ে এখন বিভিন্ন সমীক্ষার কাজ চলছে.এই ব্যাবস্থায় সেনাবাহিনীকে চারটি আলাদা নাম ও দলে বিভক্ত করা হবে.
সেনাবাহিনীকে ভিন্ন ভিন্ন দলে আলাদাকরনের কাজের যাবতীয় সব কাজ তদারকি করছে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়.প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়ে এই বিষয়ে নিয়ে এখন চলছে পরীক্ষা-নিরীক্ষা.সম্প্রতি এ বিষয় নিয়ে এক আলোচনায় বলা হয়,রাশিয়ার বর্তমানে রয়েছে ছয়টি প্রতিরক্ষা বিভাগীয় অঞ্চল ও চারটি নৌঁঘাটি যা ভিন্ন ভিন্ন প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত অপারেশনে অংশ নিয়ে থাকে.এই চারটি অঞ্চল হল-উত্তর,দক্ষিন,পূর্ব ও পশ্চিম.
অবশ্য প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয় এ বিষয়টি এড়িয়ে যাচ্ছে না যে, নতুন কৌশল ব্যবস্থা শুরু করতে আরও দুই বছর সময় লাগবে.এখন শুধুমাত্র প্রকল্পটির পর্যালোচনার কাজ চলছে.সূত্র জানায়,সেনাবাহিনীর এই কার্যব্যবস্থা ইতিমধ্যেই বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ব্যবহার করা হচ্ছে.
রাশিয়ার সেনাবাহিনীর এই রদবদলকে নিয়ে কী ভাবছেন বিশেষজ্ঞরা.এই বিষয়ে জানার জন্য রেডিও রাশিায়া কথা বলে জনপ্রিয় ম্যাগাজিন ‘জাতীয় প্রতিরক্ষা’র সম্পাদক ইগর কারেতচেনকোর সাথে.তিনি বলেন-অঞ্চল ভিত্তিক প্রতিরক্ষা বিভাগকে সংস্কারের বিষয়টি আমার কাছে বিপ্লবের মতই সিদ্ধান্ত মনে হয় এবং এই ক্ষেত্রে প্রতিটি পদক্ষেপ অত্যন্ত সতর্কতার সাথে নিতে হবে.ইগর কারেতচেনকো আরও বলেন,সেনাবাহিনীকে বিভক্ত করার এই কার্যক্রম চূড়ান্তভাবে গৃহিত হওয়ার পূর্বে একাধিকবার তা পরীক্ষামূলকভাবে পর্যবেক্ষন করতে হবে.কাগজে –কলমে অনেক কিছুই খুব সুন্দর মনে হলেও কার্যকরের সময় অনেক প্রতিবন্ধকতা চোখে পরে.
রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রনালয় জানিয়েছে যে,চূড়ান্তভাবে এই কার্যক্রম তখনই গৃহিত হবে যখন সব পর্যবেক্ষনের কাজের আশানুরুপ ফলাফল পাওয়া.

<sound>