ভারতের উপযুক্ত বিশেষ বিভাগ ইস্লামাবাদে ভারতের দূতাবাসের সেকেন্ড সেক্রেটারি মাধুরী গুপ্তাকে পাকিস্তানের পক্ষে গুপ্তচরবৃত্তির জন্য সন্দেহ করার বিষয়টি তদন্ত করছে, যার কার্যকলাপ জাতীয় নিরাপত্তার জন্য বিপদ সৃষ্টি করেছে. এ সম্বন্ধে আজ এন.ডি.টি.ভি টেলি-চ্যানেলে বক্তৃতা দিয়ে বলেছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শ্রী এস.এম.কৃষ্ণ. ভারতের প্রচার মাধ্যম জানিয়েছে য়ে, ৫৩ বছর বয়সী শ্রীমতী গুপ্তা ইস্লামাবাদে ভারতীয় দূতাবাসে প্রেস বিভাগে কাজ করতেন সেকেন্ড সেক্রেটারির পদে. গত ছয় মাস ধরে ভারতের প্রতি-গুপ্তচরবৃত্তি বিভাগ তাঁকে নজরে রেখেছিল, কারণ পাকিস্তানের পক্ষে গুপ্তচরবৃত্তির জন্য সন্দেহ করার ভিত্তি দেখা দিয়েছিল. পরে গুপ্তচরবৃত্তির অকাট্য সাক্ষ্য-প্রমাণ পাওয়ার পর, তাঁকে কর্মসূত্রে ভারতের রাজধানীতে ডেকে পাঠানো হয়, এবং গত শুক্রবার তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়. শ্রীমতী গুপ্তা নিজের অপরাধ স্বীকার করেছেন. এ ব্যাপারে তদন্ত চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে.