তালিনে ন্যাটোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকের পর ন্যাটো রাশিয়ার সাথে “ চলমান আলোচনা “ চালিয়ে যেতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে.এর ফলশ্রুতিতে ন্যাটে রাশিয়ার সাথে মিলিতভাবে রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থা গ্রহন করার বিষয়ে আরও একধাপ এগিয়ে থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে.
তবে ন্যাটের এই আশা হয়ত সহজে পূরণ হবে না.মস্কো ইতিমধ্যে এ বিষয়ে শর্তারোপ করেছে.মস্কো পশ্চিম ইউরোপের দেশগুলোর সাথে রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থা ক্ষেত্রে সম্পর্ক উন্নয়নে যদি আগ্রহ প্রকাশ করেছে.জানালেন ন্যাটোতে নিযুক্ত রাশিয়ার দূত দিমিত্রি রাগোজিন.তিনি বলেন ,রাশিয়া একই বিষয় নিয়ে এর আগেও কয়েকবার সহযোগি রাষ্ট্রগুলোর সাথে রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থার একটি সমাধানে উপনীত হওয়ার আহবান জানায়.তবে তা কোন বিশেষ শিরোনাম দিয়ে নয়,বরং বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়.ন্যাটোর উদ্দোগে আয়োজিত ঐ বৈঠকে রাশিয়ার একটি শীর্ষ বিশেষজ্ঞদের দল পাঠানো হবে.
রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থায় ন্যাটোর সাথে মিলিতভাবে কাজ করার ক্ষেত্রে রাশিয়ার দৃষ্টিভঙ্গি কেমন হওয়া উচিত?এ বিষয়ে আমরা রেডিও রাশিয়া থেকে কথা বলি রাশিয়ার আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা সেন্টারের বিশেষজ্ঞ ব্লাদিমীর ইবসেবের সাথে.তিনি জানান-
রাশিয়ার এই তথ্য বাতায়নের ক্ষেত্রে বিশেষভাবে রয়েছে গাবালিনের রেডিকাল স্টেশন এবং একই সাথে নতুন কর্মসূচি.যার একটি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে আরমাবিতে.এছাড়াও রাশিয়ার রয়েছে অন্যতম রকেট কমপ্লেক্স সি-৪০০.যার নির্মান প্রযুক্তি ও কার্যকারিতা মার্কিন রেকট পেটররিয়টের মতই.
মস্কো মনে করছে যে ,ইউরোপীয় দেশগুলের রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থার সাথে যদি যুক্তরাষ্ট নতুন কোন মাত্রা যোগ না করে তবে সেক্ষেত্রে রাশিয়ার কাজ থেকে ইতিবাচক উত্তর আসতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে.তবে এ সব কিছুই নির্ধারিত হবে ন্যাটো ও রাশিয়ার মধ্যে রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থা বিষয়ক আগামী বৈঠকে ,যা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে আগামী ১৯ মে.