রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় দুমায় এবং ইউক্রেনের সর্বোচ্চ রাদা-তে সেভাস্তোপোলে রাশিয়ার নৌবাহিনীর অবস্থান সংক্রান্ত চুক্তি অনুমোদনের প্রশ্ন একই সঙ্গে আলোচিত হবে. এ সম্বন্ধে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতির প্রেস সেক্রেটারি নাতালিয়া তিমাকোভা. তিনি জানান,এ চুক্তিরআলোচনা শুরু হবে একই সঙ্গে, আগামী সপ্তাহে, মঙ্গলবার, ২৭শে এপ্রিল. এ সম্পর্কে সমঝোতা অর্জিত হয়েছে খার্কোভে, রাশিয়া ও ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ ও ভিক্তর ইয়ানুকোভিচের আলাপ-আলোচনার সময়. এ দলিল অনুযায়ী, ২০১৭ সালের পরে ক্রিমিয়াতে রাশিয়ার কৃষ্ণসাগরীয় নৌবাহিনীর অবস্থানের মেয়াদ প্রলম্বন করা হচ্ছে আরও ২৫ বছরের জন্য. মার্চ মাসে রিসার্চ অ্যান্ড ব্র্যান্ডিং গ্রুপের দ্বারা পরিচালিত ইউক্রেনের অধিবাসীদের মত সংগ্রহের ফলাফল অনুযায়ী, ৬০ শতাংশের উপর লোকে ক্রিমিয়াতে রাশিয়ার কৃষ্ণসাগরীয় নৌবাহিনীর অবস্থান প্রলম্বনের ইতিবাচক মূল্যায়ন করে. সেই সঙ্গে ১৮ শতাংশ মতদাতা শর্তহীনভাবে সেভাস্তোপোলে কৃষ্ণসাগরীয় নৌবাহিনীর অবস্থানের মেয়াদ প্রলম্বনে সম্মত হতে প্রস্তুত. ৪৩ শতাংশ মতদাতা রাশিয়ার তরফ থেকে ইউক্রেনকে অর্থনৈতিক সুবিধা দানের শর্তে সম্মত. একই সঙ্গে ২২ শতাংশ মতদাতা চায় রাশিয়া ২০১৭ সালের পরে সেভাস্তোপোল থেকে নিজের নৌ-ঘাঁটি যেন সরিয়ে নিয়ে যায়, যেমন অনুমিত দ্বিপাক্ষিক চুক্তিতে.