পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট লেখ কাচিন্সকি , প্রেসিডেন্ট পত্নী মারিয়া এবং পোল্যান্ডের একসারি মন্ত্রী আজ রাশিয়ার সোমালেন্সকী প্রদেশে বিমান দূর্ঘটনায় নিহত হয়েছে.প্রেসিডেন্টকে বহনকারী টিউ ১৫৪ মার্কার বিমানটি রাশিয়ার পশ্চিমাঞ্চলীয়  সমোলেস্ক শহরের নিকট বিধ্বস্ত হয়.বিমানে মোট ১৩২ জন যাত্রী ছিল.যাদের মধ্যে ছিল কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্ণর, উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তা ও তাদের পরিবারের সদস্যরা.
বিভিন্ন বার্তা সংস্থা জানায় যে,বিমানের কোন যাত্রীই বেঁচে নেই.দূর্ঘটনার পরই কাতিনস্কীতে বার্ষরিক শোক দিবসে অংশ নিতে ওয়ারস থেকে পোল্যান্ডের সরকারি নেতাকর্মীদের একটি দল সামোলেস্কের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছে.
পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্টকে বহনকারী বিমানটি মস্কো সময় ১০.৫৫ মিনিট পরই রাডারের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়.সোমালেন্সকী বিমানঘাঁটি থেকে মাত্র ১ কিলোমিটার অদূরে বনের ভিতরে বিধ্বস্ত হয়ে পরে.সমোলেন্সকী প্রদেশের গভর্ণর সেরগেই আন্তুফেব জানায়, বিমানের পাইলট ভুল স্থানে অবতরনের চেষ্টা করলেই এই দূর্ঘটনা ঘটে. তিনি বলেন,প্রেসিডেন্টের বিমানটি একটি উচুঁ বৃক্ষের সাথে সজোঁড়ে ধাক্কা লাগে,এর ফলে বিমানটিতে আগুন ধরে ছোট ছোট টুকরো হয়ে নিচে পরে.প্রসিডেন্টের সাথে বিমানো মোট কতজন সফরসঙ্গী ছিল তা আমরা জানার চেষ্টা করছি.
রাশিয়ার পেসিডেন্টের নির্দেশে রাশিয়ার জরুরি পরিস্থিতি মন্ত্রনালয়ের প্রধান সেরগেই শওগেই ইতিমধ্যে সমোলেন্সকীর উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছে.ঘন কুয়াঁশার কারণেই বিমানটি দূর্ঘটনার শিকার হয় বলে আপাতত ধারনা করা হচ্ছে.বিমানের পাইলট ঘন কুয়াঁশার কারণে প্রায় চারবার অবতরনের চেষ্টা করে.সর্বশেষে সমোলেন্সকীতে অবতরনের সময় বিমনটি একটি উচুঁ বৃক্ষের উপরের অংশের সাথে ধাক্কা লাগে.
এ রকম দুর্ঘটনায় জীবিত থাকার সম্ভবনা খুবই কম থাকে.