রাশিয়া কির্গিজিয়ার কর্তৃপক্ষ এবং বিরোধীপক্ষকে আহ্বান জানিয়েছে সমস্ত মতভেদ গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার কাঠামোতে, বল প্রয়োগ না করে মীমাংসা করার. এ সম্বন্ধে আজ বলেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি গ্রিগোরি কারাসিন. তিনি উল্লেখ করেন যে, মস্কো কির্গিজিয়ার পরিস্থিতির প্রতি মনোযোগ সহকারে লক্ষ্য রাখছে, য়েখানে মঙ্গলবার থেকে শৃঙ্খলারক্ষা সংস্থা ও বিরোধীপক্ষের মাঝে সঙ্ঘর্ষ হচ্ছে. এদিকে দেশে উত্তেজনা বাড়ছে. তালাস শহরে শুরু হওয়া প্রতিবাদ আন্দোলন আজ সকাল থেকে ছড়িয়ে পড়ে রাজধানী বিশকেকে. আইন ও শৃঙ্খলা সংস্থা বিশেষ উপায়ে বিরোধী সোশ্যাল-ডেমোক্রেটিক পার্টির দপ্তরের কাছে আন্দোলন দমন করার পর মিছিলকারীরা সরে আসে শহরের কেন্দ্রস্থলে সরকারের ভবনের কাছে. ব্যাপক প্রতিবাদ আন্দোলন দেশের অন্যান্য অঞ্চলেও চলছে. জানানো হয়েছে যে, বিশৃঙ্খলার ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ১০০ জনেরও বেশি লোক, যাদের মধ্যে বেশির ভাগই- স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মী. আলমাজবেক আতামবায়েভের নেতৃত্বে বিরোধীপক্ষের নেতাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে. প্রতিবাদকারীরা রাষ্ট্রপতি কুর্মামবেক বাকিয়েভকে অপসারণের চেষ্টা করছে, তাঁর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে. কর্তৃপক্ষ বিশৃঙ্খলা আয়োজনে তৃতীয় শক্তির জড়িত থাকার সম্ভাবনা বাদ দিচ্ছেন না.