রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে দ্বিপাক্ষীক সম্পর্ক আরও উন্নয়নের দিকে এগিয়ে চলছে.রাশিয়ার সহকারি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আন্দ্রেই দেনিসব এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন.ওয়াশিংটনে রাশিয়ার দুতাবাসে মস্কো-ওয়াশিংটনের অর্থনৈতিক সংলাপে অংশগ্রহনের পর আন্দ্রেই সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এই বিবৃতি প্রদান করেন.
ওবামা প্রশাসনের দায়িত্ব পালনের পর থেকেই প্রায় সব ক্ষেত্রেই রাশিয়া-যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক “পূনঃউন্নয়নের “ পথে এগিয়ে চলছে.রাশিয়ার সহকারি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন,বর্তমানে দুটি দেশর মধ্যে নিয়োমিত পর্যায়েই বিভিন্ন সাক্ষাত অনুষ্ঠিত হচ্ছে.
এই বিষয়ে আমরা কথা বলি যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা ইন্সটিটিউটের সহকারি পরিচালক পাবেল জালোতারেবের সাথে.তিনি জানান,
যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক অঙ্গনে বড় পরিবর্তন এসেছে বারাক ওবামা প্রেসিডেন্ট হিসাবে দায়িত্ব পালনের মধ্য দিয়ে যা গভীর রাজনৈতিক চারিত্রিক বৈশিষ্ট বহন করছে.
জর্জ বুশ তার প্রেসিডেন্ট থাকাকালিন যে প্রশাসনিক আধিপত্য বজায় রাখতে চেয়েছিল সেই ওবামা দায়িত্ব নেওয়ার পর হোয়াইট হাউসের সেই পটভূমির এখন অনেক পরিবর্তন এসেছে.
আর বর্তমানে রশ-মার্কিন সম্পর্ক পূর্বের যেকোন সময়ের তুলনায় অত্যন্ত ভাল অবস্থানে রয়েছে. দুটি দেশের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক বিষয়ে আলোচনার করলে সবার আগে যে বিষয়টি চলে আসে তা হল ,পারমানবিক অস্ত্র বিষয়টি.
বার্তা সংস্থা তাস জানায় যে,রাশিয়ার দুতাবাসে আয়োজিত দ্বিপাক্ষীক ঐ বৈঠকে দুটি দেশের মধ্যে অর্থনৈতিক সংলাপ ছাড়াও পারমানবিক অস্ত্র কমিয়ে আনা চুক্তি এসএনবে স্বাক্ষরের বিষয়েও আলেচনা করা হয়.

উল্লেখ্য আগামী ৮ এপ্রিল প্রাগে বারাক ওবামা ও দিমিত্রি মেদভেদেভ পারমানবিক অস্ত্র হ্রাস চুক্তি এসএনবে স্বাক্ষর করবেন.

<sound>