ইরানের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের নতুন বাধানিষেধ সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে পরামর্শ আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে শুরু হবে. এ সম্বন্ধে বুধবার বলেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র সচিব হিলারী ক্লিন্টন. তিনি উল্লেখ করেন যে, তাতে অংশগ্রহণ করবে ষষ্ঠদেশের (রাশিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, চীন, গ্রেট-বৃটেন, ফ্রান্স এবং জার্মানির) প্রতিনিধিরা এবং রাষ্ট্রসঙ্ঘের সদস্য অন্যান্য দেশের রাষ্ট্রদূতরা. ক্লিন্টন উল্লেখ করেন যে, ষষ্ঠদেশ এ নিয়ে এক বছরের উপর কাজ করছে এবং ঐক্য বজায় রেখেছে. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং পাশ্চাত্যের একসারি দেশ সন্দেহ করছে যে, ইরান শান্তিপূর্ণ পরমাণুর কর্মসূচির আড়ালে পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি করছে এবং তাই ইউরেনিয়াম পরিশোধন থামাতে তেহেরানের অস্বীকৃতির জন্য তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের নতুন নতুন বাধানিষেধ প্রবর্তনের পক্ষে মত প্রকাশ করছে. তেহেরান সমস্ত অভেযোগ অস্বীকার করেছে এবং ঘোষণা করেছে যে তার পারমাণবিক কর্মসূচি নিছক শান্তিপূর্ণ চরিত্রের.