রাশিয়ার সাইবেরিয়ার শহর আঙ্গারায় ইউরেনিয়ান মজুদ করার জন্য একটি আন্তর্জাতিক জ্বালানী ব্যাঙ্ক গঠন করা হবে.
বিশ্বে এই প্রথমবারের মত এ ধরনের একটি আন্তর্জাতিক ব্যাঙ্ক গঠনের জন্য আগামী ২৯ মার্চ ভিয়েনায় রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় কর্পোরেশনে রসআতোম ও আন্তর্জাতিক ইউরেনিয়াম পরিশোধনের কেন্দ্রের মাঝে এক চুক্তিপত্র স্বাক্ষর হবে.চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে রাশিয়ার পক্ষে উপস্থিত থাকবেন রসআতোমের কর্মকর্তা সেরগেই কিরিয়েনকো ও আন্তর্জাতিক ইউরেনিয়াম পরিশোধনের কেন্দ্রের জেনারেল ডিরেক্টর ইউকিও আমানা.
প্রকল্প অনুসারে আঙ্গারার রাসায়নিক কমপ্লেক্সে ইউরেনিয়াম মজুদের আন্তর্জাতিক ব্যাঙ্ক গঠন হবে.আন্তর্জাতিক ইউরেনিয়াম পরিশোধনের কেন্দ্রের শর্তসাপেক্ষেই এখানে ইউরেনিয়াম মজুদ করা হবে.
রাশিয়ার “রসআতোম”রাষ্ট্রীয় "ইন্টারফাক্স" সংবাদ সংস্থাকে জানানো হয়েছে যে, ব্যাঙ্ক গঠিত হবে ইর্কুত্স্ক প্রদেশের আঙ্গার পরিশোধন কারখানার ভিত্তিতে, যেখানে ইতিমধ্যেই কাজ করছে ইউরেনিয়াম পরিশোধনের আন্তর্জাতিক কেন্দ্র. এই নতুন ব্যবস্থা পারমাণবিক শক্তি বিকাশ করতে ইচ্ছুক দেশগুলিকে পরিশোধিত ইউরেনিয়াম সংক্রান্ত সার্ভিস পাওয়ার গ্যারান্টি দানের সুযোগ দেবে, ব্যাখ্যা করা হয় “রসআতোমে”. এই জ্বালানী ব্যাঙ্কে আবেদন করতে পারে যে কোনো দেশ, যার খোলা বাজারে তা কেনার সুযোগ নেই. জ্বালানী সরবরাহ করা হবে আন্তর্জাতিক পারমাণবিক শক্তি এজেন্সির ডিরেক্টর জেনারেলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী.
এ বিষয়ে আমরা কথা বলি বিশ্ব অর্থনীতি ও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ইন্সটিটিউটের কর্মকর্তা ব্লাদিমীর ইবসোবের সাথে.তিনি জানান,
রাশিয়া এই অবস্থানে আসেতে পেরেছে শুধুমাত্র নিজেদের বিশ্বাষযোগ্যতার মাধ্যমেই.রাশিয়ায় এই আন্তর্জাতিক জ্বালানী ব্যাঙ্ক গঠনের বিষয়ে খোদ রাশিয়াকেই এখন পারিপার্শিক অবস্থার প্রতি বিশেষ নজর দিতে হবে.বিশেষ করে ইরানের মত রাষ্ট্রের ক্ষেত্রে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে.ব্লাদিমীর বলেন,রাশিয়া এমন সময়ই এই ব্যাঙ্ক গঠনের চুক্তিপত্র স্বাক্ষর করতে যাচ্ছে যখন রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের ঐতিহাসিক স্টার্ট চুক্তি স্বাক্ষরের দিনক্ষন ধার্য করে ফেলেছে. (sound)