রাশিয়ার প্রথম অপটিক্যাল ফাইবার তৈরীর কারখানা স্থাপন করা হচ্ছে মরদোভিয়া (ভোলগা নদীর অপর পারের রাজ্য) রাজ্যের রাজধানী সারানস্ক শহরে. রাশিয়ার বিজ্ঞানীদের সৃষ্ট সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে এখানে উত্পাদন করা হবে.

    রাশিয়াতে আজ অবধি অপটিক্যাল ফাইবার তৈরী করার জন্য বড় কোন কারখানা নেই, যদিও আমাদের বিজ্ঞানীরা এই ক্ষেত্রে বহু সাফল্য মণ্ডিত গবেষণা করে তাঁদের বিদেশী সহকর্মীদের কাছে বিরাট নাম কুড়িয়েছেন. রাশিয়ার বিজ্ঞান একাডেমী ফাইবার অপটিক্স বিষয়ে বৈজ্ঞানিক অনুসন্ধান কেন্দ্রের ডিরেক্টর ইভগেনি দিয়ানভ বলেছেনঃ

    "আমাদের কেন্দ্র বিশ্বের একটি প্রথম সারির নাম করা ফাইবার অপটিক্সের কেন্দ্র. আমরা এমন সমস্ত নতুন কাজ করি, যা সকলের জন্যই আগ্রহের সৃষ্টি করে থাকে. ফোটন স্ফটিক (কৃস্টাল) ব্যবহার করে প্রযুক্তি তৈরী করা হয়েছে, দারুণ ইন্টারেস্টিং একটি দিক এই প্রযুক্তি, নতুন ধর্ম যুক্ত ফাইবার অপটিক্যাল পাথ তৈরী করা সম্ভব হয়েছে. এই নতুন প্রযুক্তি আমরা ল্যাবরেটরীর উপযুক্ত করে বানাতে পেরেছি, এ ছাড়া আমরা পরিকল্পনা করছি কার্বন প্রলেপ দেওয়া ফাইবার অপটিক্যাল পাথ তৈরী করার চেষ্টা করার, যার বেশ কয়েকটি বিশেষত্ব আছে. আর নতুন ধরনের পাথ, যেগুলি খুব বেশী রকম ভাবে বেঁকে থাকলেও কম আলো ক্ষয় করবে. এই সব কিছু নিয়েই আমরা বেশ সাফল্য পেয়েছি এবং আশা করছি, যখন কারখানা তৈরী হয়ে যাবে, তখন আমাদের এই সব প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে".

    অ্যাকাডেমিশিয়ান দিয়ানভ বলেছেন — ফাইবার অপটিক্যাল পাথ – এটা একটা খুব লম্বা সরু সুতোর মত জিনিস, যার মধ্যে কাঁচের ধর্ম খুবই বিশেষ ধরনের ও জটিল, এর উপরে একটা প্রলেপ দেওয়া হয়ে থাকে, যা সাধারণত হয় ধাতব অথবা পলিমারের. আলোর সাহায্যে তার ভিতর দিয়ে একসঙ্গে অনেক তথ্য পাঠানো সম্ভব হয়. এই অপটিক্যাল কেবল আগুনের থেকে নিরাপদ, শক্ত, তা যে রকম দরকার বেঁকান যায়, জলে কোন ক্ষতি হয় না, তাপমাত্রা বিরাট রকমের বাড়া কমাতে কোন ক্ষতি হয় না, বাস্তবে কোন রকমের পরিষেবার প্রয়োজন হয় না এবং বহু বছর ধরে এগুলি ব্যবহার যোগ্য থাকে. রাশিয়ার আধুনিক ফাইবার অপটিক্সের একজন জনক অ্যাকাডেমিশিয়ান দিয়ানভ, তিনি মনে করেন এই বৈজ্ঞানিক প্রযুক্তির ভবিষ্যত খুবই বাল, তাই তিনি বলেছেনঃ

    "ফাইবার অপটিক্স বর্তমানে সারা বিশ্বে অনেক কাজে লাগছে, প্রথমতঃ যোগাযোগ ব্যবস্থার কাজে ও খুবই দ্রুত গতিতে তথ্য আদান প্রদানের কাজে. আর বর্তমানের সমাজের প্রয়োজন আছে এই বিজ্ঞানের, কারণ প্রশাসন, অর্থনীতি, শিক্ষা সব ক্ষেত্রেই বিরাট পরিমানে তথ্য পাঠানোর দরকার আছে. আর অপটিক্যাল ফাইবার ব্যবস্থা ছাড়া এই কাজ করার অন্য কোন উপায় নেই".

    ২০১২ সালে সারানস্ক শহরের অপটিক্যাল ফাইবার তৈরীর কারখানা পুরো দমে কাজ শুরু করবে, যার ফলে রাশিয়ার ১৪ টি কারখানা যারা এই ফাইবার ব্যবহার করে নানা রকমের অপটিক্যাল কেবল তৈরী করে তারা আমদানী বন্ধ করে দেশে তৈরী ফাইবার কাঁচা মাল হিসাবে ব্যবহার করতে পারবে. এ ছাড়া মরদোভিয়া রাজ্যে তৈরী জিনিস বাইরে রপ্তানী করার কথাও হচ্ছে.