রুশ-চীনা বাণিজ্যিক-অর্থনৈতিক সম্পর্কের বিকাশ- আজ মস্কোয় রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিন এবং চীনা গণপ্রজাতন্ত্রের উপসভাপতি সি জিনপিনের সাক্ষাতে মনোযোগের কেন্দ্রস্থলে রয়েছে. চীনা নেতা রাশিয়ায় আছেন গত শনিবার থেকে. তিনি নিজের সফর শুরু করেন ভ্লাদিভস্তোক থেকে, সেখানে দু দেশের সীমান্ত অঞ্চলে জ্বালানী ও বিদ্যুত্শক্তি ক্ষেত্রে সহযোগিতার বিষয় আলোচনা করেন এবং ১৫টি চুক্তি স্বাক্ষর করেন, যার মোট মূল্য দেড়শো কোটি ডলারের উপর.তারপর তিনি গিয়েছিলেন সাঙ্কত-পিতারবুর্গে. আজ ভ্লাদিমির পুতিন এবং সি জিনপিন অংশগ্রহণ করবেন রাশিয়ায় চীনা ভাষার বর্ষের উদ্বোধনী সমারোহে, যা ২০১০ সালে রুশ-চীনা সম্পর্কের একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা বলে বিবেচিত হচ্ছে. এ বর্ষের কাঠামোতে ৮০টিরও বেশি অনুষ্ঠান পরিচালনার পরিকল্পনা আছে – বৈজ্ঞানিক-প্রায়োগিক সম্মেলন, প্রদর্শনী ও উত্সব, চীনা ভাষা ও সাহিত্যের জ্ঞান সংক্রান্ত বিভিন্ন প্রতিযোগিতা, চীনা নাট্য ও সঙ্গীত দলের ট্যুর-শোর. রাশিয়ার উচ্চশিক্ষালয়গুলিতে চীনা ভাষার বিভাগ খোলার পরিকল্পনা আছে, অধ্যাপক ও ছাত্রদের বিনিময় হবে, চীনা গণপ্রজাতন্ত্রে রাশিয়ার স্কুলশিক্ষার্থীদের জন্য গ্রীষ্মকালীন শিবির আয়োজিত হবে. ২০০৯ সালে চীনে অনুষ্ঠিত হয়েছিল রুশ ভাষার বর্ষ.