চিলিতে ২৩-২৮শে মার্চ অনুষ্ঠিতব্য আন্তর্জাতিক বিমান প্রদর্শনীতে রাশিয়ার সুখোই কোম্পানির দ্রষ্টব্য বস্তুগুলির মধ্যে মুখ্য স্থান অধিকার করবে সু-৩৫ এবং সু-৩০এম.কা.২ মার্কা ফাইটার বিমান. বহু লক্ষ্যের সুপার-ম্যানুভারিলিটি সম্বলিত সু-৩৫ মার্কা বিমান এখন ল্যাটিন আমেরিকান দেশগুলিতে পরিচয় করানো হচ্ছে, তবে দুই-আসনের বহু লক্ষ্যসম্বলিত সু-৩০এম.কা.২ ফাইটার বিমান ইতিমধ্যেই বিদেশী ফরমাশদাতাদের সরবরাহ করা হচ্ছে, ইন্টারফাক্স সংবাদ সংস্থাকে বলেছেন কোম্পানির প্রেস-সার্ভিসের প্রতিনিধি. বর্তমানে "সু" মার্কা ফাইটার বিমান রাশিয়ার সামরিক বিমান রপ্তানির বনিয়াদ. গত বছরে ভারত, মালয়েশিয়া, আলজিরিয়া ও ইন্দোনেশিয়াকে সু-৩০এম.কা শ্রেণীর প্রায় ৪০টি বিমান সরবরাহ করা হয়েছিল. সুখোই মার্কা ফাইটার বিমান ল্যাটিন আমেরিকাতেও সুপরিচিত. গত কয়েক বছর ধরে "সু-৩০এম.কা.২" মার্কা বিমান ব্যবহার করছে ভেনেজুয়েলার বিমান বাহিনী, এবং বৈমানিক ও অধিনায়কমন্ডলী তার উচ্চ মূল্যায়ন করেছে. এ আশা করার ভিত্তি আছে যে, নিকট ভবিষ্যতে নতুন নতুন "সু-৩৫" এবং "সু-৩০এম.কা.২" মার্কা বিমান এ অঞ্চলের দেশগুলির বিমান বাহিনীতে দেখা দেবে, বলা হয়েছে প্রেস সার্ভিসে. পঞ্চম প্রজন্মের ফাইটার বিমানের কিছু কিছু প্রকৌশলের "সু-৩৫" বিমানে ব্যবহার, সেগুলিকে চতুর্থ প্রজন্মের অন্যান্য ফাইটার বিমানের তুলনায় প্রাধান্য দেয়. এখন পৃথিবীতে পঞ্চম প্রজন্মের ফাইটার বিমান তৈরি করা হচ্ছে.