কিউবা এ বছরের প্রথম ক্ষেপ রাশিয়ার মানবতাবাদী সাহায্যের জিনিসপত্র পেয়েছে. সিয়েনফুয়েগোস বন্দরে ২৫ হাজার টন শস্য নিয়ে যাওয়া জাহাজটির মাল খালাস করা হচ্ছে. রাশিয়ার সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, কিউবাকে এ বছরে এক লক্ষ টন গম সরবরাহ করার কথা. বর্তমানে দ্বিতীয় ক্ষেপ শস্য জাহাজে ভরার প্রস্তুতি চলছে. আশা করা হচ্ছে যে, এই মার্চ মাসেই রাশিয়ার গম নিয়ে দ্বিতীয় জাহাজ কিউবায় রওনা হবে. তাছাড়া শিগগিরই রাশিয়ার শস্য পাবে মঙ্গোলিয়া, নিকারাগুয়া, ইথিওপিয়া এবং অন্যান্য গরীব দেশ. মোট সরবরাহ করা হবে ২০ লক্ষ টন শস্য. যা আমাদের দেশের জন্য রেকর্ড পরিমাণ. বিশেষজ্ঞদের মূল্যায়ন অনুযায়ী, বিনা পয়সায় শস্য রপ্তানি করে রাশিয়া কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ কর্তব্য সমাধান করছে. একদিকে, এই খাদ্য সরবরাহের বদলে সে কিছু কিছু ছাড় পাওয়ার আশা করছে – যেমন, খনিজ সম্পদ নিষ্কাশনের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার লাভ. এ সব কিছু ছাড়াও, শস্য পাঠিয়ে রাশিয়া নিজের হস্তক্ষেপের সঞ্চয়ের অতিরিক্ত অংশ থেকে মুক্ত হবে, যার পরিমাণ ১ কোটি টন.