রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এ অনুমান করার ভিত্তি আছে যে, দু দেশের প্রতিনিধিদল রণনৈতিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত চুক্তি প্রস্তুতির শেষ পর্যায়ের শেষ অংশে পৌঁছেছে. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র সচিব হিলারী ক্লিন্টনের সাথে আলাপ-আলোচনার ফলাফলের ভিত্তিতে এ সম্পর্কে বলেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ. তিনি বলেন, রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দুই রাষ্ট্রপতির নির্দেশ কিভাবে পালিত হচ্ছে তাতে আমরা সন্তুষ্ট. তাঁরা ব্যক্তিগতভাবে কাজের গতি নিয়ন্ত্রণ করছেন. তিনি এ আশা প্রকাশ করেন যে, অতি নিকট ভবিষ্যতে আলাপ-আলোচনাকারীরা কাজ শেষ হওয়া সম্বন্ধে রিপোর্ট দেবেন. লাভরোভ বলেন, এর পরে আমরা সমঝোতায় আসব রণনৈতিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত নতুন চুক্তি স্বাক্ষরের সময় ও স্থান সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিদের কি প্রস্তাব করা হবে. রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ২০০৯ সালের গ্রীষ্মকাল থেকে রণনৈতিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত নতুন চুক্তি স্বাক্ষর সম্পর্কে আলাপ-আলোচনা চালাচ্ছে. পুরনো চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়েছে ৫ই ডিসেম্বর. নতুন চুক্তি যথাসম্ভব তাড়াতাড়ি স্বাক্ষরের ইচ্ছে সম্পর্কে উভয় পক্ষের বহুসংখ্যক বিবৃতি সত্ত্বেও মস্কো ও ওয়াশিংটন বছরের শেষ অবধি জেনেভায় নতুন চুক্তি নিয়ে আলাপ-আলোচনায় একমতে আসতে পারে নি. প্রধান বাধা, যা সরকারী তথ্যের দ্বারা সমর্থিত হয় নি, তা ছিল চুক্তির কাঠামোতে নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা এবং পারস্পরিক পরীক্ষা সংক্রান্ত প্রশ্ন. ফেব্রুয়ারীর শেষে মস্কো ও ওয়াশিংটনে আমলারা ঘোষণা করেছিল যে, চুক্তি স্বাক্ষরিত হতে পারে ১২-১৩ই এপ্রিলের জন্য নির্ধারিত নিরস্ত্রীকরণ সংক্রান্ত শীর্ষ সাক্ষাতের আগে, কিন্তু এখনও পর্যন্ত চুক্তি স্বাক্ষরের দিন জানানো হয় নি.