মস্কোয় নিকট প্রাচ্য সঙ্ঘর্ষ মীমাংসা সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক মধ্যস্থ চতুষ্ঠয়ের বৈঠকে একটি প্রধান আলোচ্য বিষয় হবে প্যালেস্টাইনী-ইস্রাইলী সঙ্কট প্রশমন ও আলাপ-আলোচনার প্রক্রিয়া পুনরারম্ভ করার সম্ভাবনা. রাশিয়ার রাজধানীতে ইতিমধ্যেই পৌঁছেছেন রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদক বান কি মুন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র সচিব হিলারী ক্লিন্টন, "চতুষ্ঠয়ের" বিশেষ প্রতিনিধি টনি ব্লেয়ার, ইউরো সঙ্ঘের পররাষ্ট্র নীতি ও নিরাপত্তা সংক্রান্ত সর্বোচ্চ প্রতিনিধি ক্যাথ্রিন এশটন. এর প্রাক্কালে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ বলেন যে, নিকট প্রাচ্য চতুষ্ঠয় ইস্রাইল ও প্যালেস্টাইনের মাঝে প্রত্যক্ষ আলাপ-আলোচনার শর্ত সংক্রান্ত আগেকার সব সিদ্ধান্তের খতিয়ান টানা দলিল গ্রহণ করতে একান্ত ইচ্ছুক. সংলাপ পুনরারম্ভের জন্য মুখ্য বাধা বলে মনে করা হয় জর্ডান নদীর পশ্চিম তীরে ইহুদী বসতির নির্মাণ. প্যালেস্টাইনীরা এই বসতি নির্মাণের কার্যকলাপ সম্পূর্ণভাবে বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত আলাপ-আলোচনার টেবিলে ফিরতে অস্বীকার করছে. আর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের চাপ সত্ত্বেও ইস্রাইল শুধু আংশিক ও সাময়িক স্থিতাবস্থার জন্য প্রস্তুত. আগে "রিয়া নোভস্তি" সংবাদ সংস্থাকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদক বান কি মুন উল্লেখ করেন যে, মস্কো সাক্ষাতের ফলাফলের ভিত্তিতে "চতুষ্ঠয়" এক বিবৃতি গ্রহণ করবে, যাতে দখলিত প্যালেস্টাইনী ভূভাগে ইস্রাইলের দ্বারা বেআইনীভাবে নতুন নতুন ইহুদী বসতি নির্মাণের নিন্দে সমর্থন করা হবে.