আফগানিস্তানে নার্কোটিকের বিপদকে শুধু সন্ত্রাসবিরোধী অভিযানের পরিপুরক হিসেবে বিবেচনার দরুণ তা বিশ্ব পরিসরের সমস্যায় পরিণত হয়েছে. সোমবার ভিয়েনায় নার্কোটিক বস্তু সংক্রান্ত কমিশনের বৈঠকে এ বিবৃতি দিয়েছেন রাশিয়ার ফেডারেল নার্কোটিক প্রসার নিয়ন্ত্রণ বিভাগের ডিরেক্টর ভিক্তর ইভানোভ.

   সন্ত্রাসবিরোধী অভিযানের রূপে আফগানিস্তানকে প্রেসক্রিপশন দেওয়া ওষুধ প্রায় খাস রোগের চেয়েও ভয়ঙ্কর বলে প্রমাণিত হয়েছে, জোর দিয়ে বলেন ইভানোভ. এর সাক্ষ্য হতে পারে সারা পৃথিবীতে বিগত দশকে এর দরুণ মারা যাওয়া প্রায় দশ লক্ষ লোক. সেইজন্য বিগত দু বছরে আফগান নার্কোটিক সমস্যার পরিসরের সামান্য হ্রাস আমাদের মনকে শান্ত করতে পারে না. আফগানিস্তানে রাডিক্যাল শক্তিকে জয় করা সম্ভব নয়. যদি নার্কোটিক উত্পাদন ও নার্কোটিক কারবারের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করা না হয়, জোর দিয়ে বলেন বিশ্ব অর্থনীতি ও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ইনস্টিটিউটের বিশেষজ্ঞ ভ্লাদিমির ইয়েভসেয়েভঃ
   দুঃখের বিষয় যে, ন্যাটো জোটের বাহিনী এর প্রতি যথেষ্ট মনোযোগ দিচ্ছে না. মনে হয়, এ দেশের ভূভাগে নিজের জন্য অতিরিক্ত সমস্যা যাতে সৃষ্টি না হয় সেজন্য. রাশিয়া-ন্যাটো পরিষদের কাঠামোতে ইউরোপীয় দেশগুলির সাথে দ্বিপাক্ষিক যোগাযোগের প্রত্যেক সাক্ষাতে, এবং মার্কিনী পক্ষের সাথে আলাপ-আলোচনার সময় নার্কোটিক চালানের সমস্যা নিয়মিত খোলা দরকার. আর নার্কোটিক সরবরাহ অবরোধ করার জন্য সহযোগিতা সুদৃঢ় করার ধারা অনুসরণ করা উচিত, সর্ব প্রথমে উত্তরী যাত্রাপথে মধ্য এশিয়ার ভূভাগ হয়ে. কারণ এই নার্কোটিক চালানের বেশির ভাগ অংশ গিয়ে পড়ে যেমন ইউরোপের দেশগুলিতে, তেমনিই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভূভাগে.
   এই উত্তরী যাত্রাপথ হয়েই নার্কোটিক যায় কাজাখস্তানে, আর সেখান থেকে রাশিয়ার ভূভাগে. রাষ্ট্রসঙ্ঘের তথ্য অনুযায়ী, ২০০৩ সাল থেকে, যখন আফগানিস্তানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো জোটের বাহিনী ঢুকেছিল, আফিংয়ের উত্পাদন ৪০ গুণের উপর বেড়েছে. বিশেষজ্ঞদের মূল্যায়ন অনুযায়ী, পৃথিবীর প্রায় ৯০ শতাংশ হেরোইন উত্পাদিত হয় এই দেশে. ভিয়েনায় ভিক্তর ইভানোভ বলেন, নার্কোটিক বিপদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রসঙ্ঘের এবং আঞ্চলিক সংস্থাগুলির সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত হওয়া উচিত ফলপ্রসূতার সুনির্দিষ্ট সূচক সম্বলিত জাতীয় স্ট্র্যাটেজির মাধ্যমে. বিশেষজ্ঞরা মনে করেন যে, রাশিয়ারও আরও ঘনিষ্ঠভাবে সহযোগিতা করা দরকার যৌথ নিরাপত্তার চুক্তি সংস্থায় নিজের মিত্রদেশগুলির সাথে. তা স্বাধীন রাষ্ট্রবর্গের দক্ষিণ সীমানায় নির্ভরযোগ্য অবরোধ সৃষ্টি করবে, এবং আফগানিস্তানের তরফ থেকে ট্রানজিট বন্ধ করা এবং নার্কোটিক বিপদের মান কমানোর সুযোগ দেবে.   (sound)