আজ ৮ মার্চ.আন্তর্জাতিক নারী দিবস.এ বছরই পূর্ণ হলো আন্তর্জাতিক নারী দিবস ঘোষণার শত বছর.দৈনিক ১২ ঘণ্টা শ্রম ও নিম্ন মজুরির  প্রতিবাদে ১৮৫৭ সালে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের সুচ কারখানার নারীশ্রমিকেরা বিক্ষোভ করে দিবসটির যাত্রা শুরু করেছিলেন.১৯৭৪ সালে জাতিসংঘ ৮ মার্চকে আন্তর্জাতিক নারী দিবস হিসেবে পালনের ঘোষণা দেয়.
এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘সম-অধিকার, সমান সুযোগ, সবার জন্য অগ্রগতি.’ 
আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষ্যে জাতিসংঘের মহাসচিব পান কি মুন বলেন,’’বিগত ১৫ বছরে বিশ্বে নারী অধিকার প্রশ্নে ইতিবাচক অগ্রগতি পরিলক্ষিত হয়েছে.এছাড়া নারীদের অধিকার রক্ষায় আন্দোলনকারী দেশসমূহের সংখ্যাও বৃদ্ধি পেয়েছে.নারীরা এখন ব্যাবসা-বানিজ্য ও রাজনৈতিক অঙ্গনে পুরুষদের সাথে সমানতালে এগিয়ে চলছে’’.
বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ন্যায় রাশিয়াতেও এ দিবসটি বেশ গুরুত্বের সাথে পালিত হয়ে আসছে. রাশিয়ার জাতীয় উত্সবগুলোর মধ্যে ৮ মার্চ বা আন্তর্জাতিক নারী দিবস অন্যতম.এই দিন রুশী নারীরা অবশ্যই ফুলসহ বিভিন্ন উপহার পেয়ে থাকেন.
রাশিয়ার জনপ্রিয় সামাজিক নেটওয়ার্কিং সাইট কনটাক্ট ও আদনাক্লাসনিকে’ও চলছে নারী দিবসের শুভেচ্ছা বিনিময়.সরকারি-বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলগুলি দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান প্রচার করছে.আজ সরকারি ছুটির দিন,তাই অনেকেই পরিবারের সবাইকে নিয়ে ঘুড়তে বেড়িয়েছেন.
এদিকে যুক্তরাষ্ট্রে ৮ মার্চ’কে কোন উত্সবমুখর দিন হিসাবে পালন করা হয় না.যদিও দেশটিতে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে নান কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে.যুক্তরাষ্ট্রে আন্তর্জাতিক নারী দিবসের প্রধান অনুষ্ঠান হবে হোয়াইট হাউসে.দেশটির প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও ফাস্ট লেডি মিশেল ওবামা ঐ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন.