রাশিয়া নিজের রণনৈতিক সংযম রাখার ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে চায় না, তবে তাকে মনে করে নিজের স্বাধীনতার গ্যারান্টিদাতা, মস্কোয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মীদের বৈঠকে বক্তৃতা দিয়ে দমিত্রি মেদভেদেভ বলেন. রাষ্ট্রপতি ব্যাখ্যা করে বলেন যে, পারমাণবিক অস্ত্র থাকা – রাশিয়ার সার্বভৌমত্ব বজায় রাখা এবং স্বাধীন নীতি অনুসরণের নির্ধারক শর্ত. শান্তি বজায় রাখা, যে কোনো সামরিক সঙ্ঘর্ষ নিবারণ করা, সঙ্ঘর্ষ পরবর্তী পরিস্থিতি মীমাংসার জন্য তা নির্দেশিত. রাশিয়ার সীমানার কাছে অসমাধিত সমস্যা রাশিয়ার নিরাপত্তার জন্য বিপদ সৃষ্টি করে, বলেন রাষ্ট্রপতি. তিনি জানান যে, জর্জিয়া এখন নিজের সামরিক ক্ষমতা পুনর্স্থাপন করছে, এবং তা করছে বিদেশী সহায়তায়. ইউরো-নিরাপত্তা সংক্রান্ত চুক্তির কথায় এসে মেদভেদেভ বলেন যে, রাশিয়ার এ উদ্যোগে প্রতিক্রিয়া হল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটোর সাথে সম্পর্কের ব্যারোমিটার স্বরূপ. রাষ্ট্রপতি আরও এ কথা সমর্থন করেন যে, মস্কো ও ওয়াশিংটন রণনৈতিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা হ্রাস সংক্রান্ত নতুন চুক্তি প্রণয়নের খুব কাছাকাছি. রণনৈতিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত আগের চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে গত বছরের ৫ই ডিসেম্বর.