রাষ্ট্রসঙ্ঘে রাশিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি ভিতালি চুরকিন বলেছেন, ইরানের সাথে আলাপ-আলোচনার সম্ভাবনা এখনও উন্মুক্ত. তাঁর উক্তি উদ্ধৃত করে ইতার-তাস সংবাদ সংস্থা জানাচ্ছে, মস্কোর স্থিতি হল এই য়ে, ইরানের সাথে আলাপ-আলোচনার জন্য রাজনৈতিক-কূটনৈতিক মীমাংসা ও সুযোগ-সম্ভাবনা খোঁজা প্রয়োজন. তেহেরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞামূলক সিদ্ধান্ত নিয়ে রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে কাজ শুরু করা সম্পর্কে কোনো নির্দেশ রাশিয়ার প্রতিনিধিদল পায় নি. ষষ্ঠী দেশের সদস্য – রাশিয়া, চীন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, গ্রেট বৃটেন, ফ্রান্স ও জার্মানি- এখনও পর্যন্ত ইরানের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত নিষেধাজ্ঞা প্রবর্তনের প্রয়োজনীয়তা সম্বন্ধে একমতে আসতে পারছে না. যেমন, চীন বিশেষ করে ঘোষণা করেছে যে, তেহেরানের বিরুদ্ধে নতুন ব্যবস্থা গ্রহণের সময় এখনও আসে নি, কারণ রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদ ইতিমধ্যে পাঁচটি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে, যার মধ্যে তিনটি নিষেধাজ্ঞা সংক্রান্ত. পশ্চিমী দেশগুলির প্রতিনিধিদের মতে, তেহেরান নিজের পারমাণবিক কর্মসূচি বাস্তবায়িত করছে সামরিক উদ্দেশ্যে এবং তা ত্যাগ করতে চাইছে না. সেই সঙ্গে ইরান নিশ্চয়োক্তি করছে যে, গবেষণা চালানো হচ্ছে নিছক শান্তিপূর্ণ উদ্দেশ্যে.