রাশিয়ার স্কি খেলোয়াড়েরা স্বল্প পাল্লার দ্রুত দৌড় প্রতিযোগিতায় দারুণ ভাল ভাবে সোনা এবং রূপো জয় করেছেন. একক স্প্রিন্টে অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন নিকিতা ক্রুকভ এবং ০, ০১ সেকেন্ড দেরীতে শেষ করেছেন আলেকজান্ডার পানঝিনস্কি. চার বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন নরওয়ে থেকে আসা পেটের নরগুট ফাইনাল রাউন্ডে তৃতীয় হয়েছেন. এই স্কি খেলোয়াড়দের দৌলতে বেসরকারি দলগত পদক প্রাপ্তির তালিকায় অবশেষে রাশিয়া চীন কে অতিক্রম করতে পেরেছে. বর্তমানে রাশিয়ার পদক সংখ্যা তিন, সোনা, রূপো এবং ব্রোঞ্জ পদক সহ. রাশিয়া ও চীন বর্তমানে ২০১০ সালের শীত অলিম্পিকের নবম ও দশম স্থানে রয়েছে. রাশিয়ার ফ্যানেরা অধীর আগ্রহে ভ্যান্কুভারে রাশিয়ার ফিগার স্কেটিং খেলোয়াড় দের প্রতিযোগিতার অপেক্ষা করছে. এ ছাড়া বিয়াথলন ও স্কেটিং প্রতিযোগিতাতেও আশা রয়েছে পদক জয়ের. আজ ইভগেনি প্লুশ্যেঙ্কো প্রতিযোগিতায় নামবেন, তাঁর কাছ থেকেও পদক প্রাপ্তির আশা রয়েছে. তিন বছর বিরতির পর তিনি আবার প্রতিযোগিতায় নেমেছেন. দেশের স্কেটিং খেলোয়াড়েরা ১০০০ মিটার দূরত্বের দৌড়ে এখনও পদক জিততে পারেন.

জয়ের পর নিকিতা বলেছেনঃ "সেমিফাইনালে তৃতীয় ফল করেও ফাইনালে সুযোগ পেয়ে আমি জানতাম যে, আমি জিততেই পারি, আমরা দুজনেই সোনা ও রূপোর জন্য লড়েছিলাম, শেষের দিকে দুজনেই যখন একে অপরকে পার হচ্ছিলাম, তখন ভয় হয়েছিল পড়ে না যাই. দেশের জন্য সোনা জেতার খুব ইচ্ছা হয়েছিল, কারণ অলিম্পিকের শুরু আমাদের জন্য খুব ভাল হয়নি. আশা করছি আমাদের পদক জয় বাকি দলকে উদ্বুদ্ধ করবে এবং সবাই রাশিয়ার জন্য লড়বে".

ফাইনালে পানঝিনস্কি শুরুতেই সবার চেয়ে বেশী এগিয়ে ছিলেন, একই দিনে পরপর তিন বার তিনি এই দূরত্বে সবার থেকে কম সময়ে পার হচ্ছিলেন. এই সময় টেলিভিশনের গায়ে হুমড়ি খেয়ে থাকা লক্ষ রাশিয়ার লোকের একটাই প্রশ্ন মাথায় আসছিল, পারবে তো শেষ রক্ষা করতে, শক্তি থাকবে তো? কিন্তু যখন শেষে শুধু নিকিতা ছিল, তখন প্রশ্ন ছিল কে সোনা পাবে?

পানঝিনস্কি বলেছেনঃ "আমি শুরু থেকেই শুধু পদকের জন্য লড়াই করছিলাম, তাই যখন শেষ কয়েক মিটারে জায়গা ছাড়তে হল, তখন কিছুটা দুঃখ হয়েছিল বৈকি, তবে আমি যেহেতু নিকিতার কাছে হেরেছি, তাই সব একটু কম কষ্টের হয়েছে. সব সত্ লড়াই করে পাওয়া এবং এখানে সব চেয়ে যে, বেশী শক্তিশালী সেই জিতেছে. কিন্তু তাও আমি খুব খুশী".

এই দুই অল্প বয়সী রাশিয়ার খেলোয়াড়ের সামনে উজ্জ্বল ভবিষ্যত. পানঝিনস্কি মাত্র গত চরেই প্রথম বড়দের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় নেমেছে, তাই তার শুরু খুব ভাল হয়েছে. তারা দেশকে যে উত্সব উপহার দিয়েছে তা সবার মনে থাকবে.