বুধবারে সেন্ট পিটার্সবার্গ শহরে আলেকজান্ডার পুশকিনের স্মৃতি দিবস পালন করা হচ্ছে. ১৮৩৭ সালে ধোপা খানার খালের ধারে বারো নম্বর বাড়ীর উঠোনে যেখানে ডুয়েলে গুলি খেয়ে মরনাপন্ন কবিকে নিয়ে আসা হয়েছিল, সেখানে আজ রাশিয়ার ভাষার জিনিয়াস এই কবির মৃত্যু দিবসে স্মৃতি সভার আয়োজন করা হয়েছে. ১৭৩ বছর আগের সেই তিনটে দিনে পুশকিনের ফ্ল্যাটের বাইরে একটানা ভীড় জমে ছিল, সমসাময়িক লোকেরা তাঁর স্বাস্থ্যের সম্বন্ধে যে কোন রকম খবরের জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিল. আজও খালের ধারে তেমনই লোকের ভীড়, আর তাঁর ফ্ল্যাটের যাদুঘরে বহু লোক এসেছেন. বহু বছর ধরেই কবির আত্মার স্মৃতির উদ্দেশ্যে টেলি রেডিও কোম্পানী "পিটার্সবার্গের" বাচ্চাদের কোরাস রাশিয়ার সম্মানিত পরিচালক স্তানিস্লাভ গ্রিবকভের পরিচালনায় গান করে. ভোলফগাঙ্গ আমাদেই মোত্সার্টের "রেক্যুয়েম" পরিবেশন করবে পরিস্কার কন্ঠের অধিকারী এই বাচ্চারা. পুশকিনের সৃষ্টির প্রতি যাঁদের শ্রদ্ধা আছে, তাঁদের জন্য সঙ্গীত অনুষ্ঠানে পুরস্কার হবে সন্ধ্যা বেলায় তিখভীন মনাস্টেরীর কোরাসের গান. মঠের শিল্পীরা বাইবেলের গান গাইবেন ও কবির পছন্দের লোক গীতি পরিবেশন করবেন. ১৮৩৭ সালে কবির সমসাময়িক লোকেরা যে পথে তার ফ্ল্যাটের ভিতরে চলাফেরা করেছিলেন, সেই পথেই আজ শ্রদ্ধা জানাতে আসা অতিথিরা চলবেন. যাদুঘরের কর্মীরা পায়ে হাঁটা এক্সকারশানের সঙ্গে তাঁর খাল ধারে বাড়ী থেকে আস্তাবলের স্কোয়ারে অদৃশ্য সৃষ্ট খ্রীষ্টের প্রতিচ্ছবি নামের গির্জাতে, যেখানে ১৭৩ বছর আগে কবির জন্য গির্জাতে শ্রাদ্ধ শান্তির গান গাওয়া হয়েছিল, সেই বারের মতই "শেষ পরিক্রমা" তে মানুষের মিছিলে পথে হাঁটবেন.